টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী বারো তীর্থের মেলা

রীতি অনুযায়ী দীঘি প্রদক্ষিণ, কীর্তন ও পূজা শেষে বিকেল পর্যন্ত পূণ্যস্নান করেন পূণ্যার্থীরা।
টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী বারো তীর্থের মেলা

দীর্ঘদিনের রেওয়াজ অনুযায়ী এবারও হয়ে গেল টাঙ্গাইলের বারো তীর্থের মেলা।

স্থানীয়দের মতে চারশ বছর ধরে চলে আসছে এই মেলা। তারই ধারাবাহিকতায় জেলার মধুপুরের শোলাকুড়িতে বারো তীর্থের দীঘিকে ঘিরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুই দিনব্যাপি পূণ্যস্নান ও মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

রীতি অনুযায়ী দীঘি প্রদক্ষিণ, কীর্তন ও পূজা শেষে বিকেল পর্যন্ত পূণ্যস্নান করেন পূণ্যার্থীরা। এরপর বসে মেলা।

এই মেলা ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে। বাহারী পণ্যের জমজমাট বেচা-কেনা চলে এখানে। হাজার হাজার মানুষ এই মেলা থেকে কেনাকাটা করেন।

রেওয়াজ অনুযায়ী মেলার দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত শুধু নারীরা কেনাকাটা করেন। সেদিন কোনো পুরুষ বউ মেলায় প্রবেশ করতে পারেন না।

বারো তীর্থের মেলা উপলক্ষ্যে ছোটদের সালামি, মিষ্টিমুখ করানো, বিবাহিত মেয়েকে শ্বশুর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে ‘নাইওর’ আনা হয়।

কথিত আছে, মোগল আমলেরও অনেক আগে থেকে চলে আসছে এই রীতি।

প্রতিবেদকের বয়স: ১৪। জেলা: টাঙ্গাইল।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.

সর্বাধিক পঠিত

No stories found.
bdnews24
bangla.bdnews24.com