প্রথম যেভাবে ওড়ানো হয় জাতীয় পতাকা

'এই জাতীয় পতাকাটি প্রথম তৈরি করা হয়েছিল ১৯৭০ সালের ৬ জুন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ১১৬ নম্বর কক্ষে এই পতাকা তৈরি করেন কয়েক জন ছাত্রনেতা।'
প্রথম যেভাবে ওড়ানো হয় জাতীয় পতাকা

বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরে রাখা বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত প্রথম পতাকা।  ছবি: আসিফ মাহমুদ অভি

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রথম উড়ে ১৯৭১ সালের ২রা মার্চ। এদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের সামনে ছাত্রসমাজকে সঙ্গে নিয়ে পতাকা ওড়ান তৎকালীন ডাকসুর ভিপি আ স ম আব্দুর রব।

এই জাতীয় পতাকাটি প্রথম তৈরি করা হয়েছিল ১৯৭০ সালের ৬ জুন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের ১১৬ নম্বর কক্ষে এই পতাকা তৈরি করেন কয়েক জন ছাত্রনেতা।

জাতীয় পতাকা তৈরির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ছাত্রনেতা কাজী আরেফ আহমেদ, শিব নারায়ণ দাস সহ ২২ জন।

সে রাতেই তারা বঙ্গবন্ধুকে পতাকা সম্পর্কে অবহিত করেন এবং বঙ্গবন্ধু এতে সম্মতি দেন। এর সাতদিন পরে পল্টন ময়দানে এক অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে ছাত্রনেতারা এই পতাকা তুলে দেন।

১৯৭১ সালের ২রা মার্চ সে পতাকাটিই ছাত্ররা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উত্তোলন করে।

বিদেশে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা প্রথম উত্তোলন করা হয় ১৯৭১ সালের ১৮ এপ্রিল। ভারতের কলকাতায় বাংলাদেশ মিশনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে পতাকা উত্তোলন করেন ডেপুটি হাই কমিশনের প্রধান এম হোসেন আলী।

সে সময় জাতীয় পতাকায় লাল বৃত্তের ভেতর সোনালি রঙের মানচিত্র খচিত ছিল।

স্বাধীনতার পর পতাকা থেকে মানচিত্র বাদ দেওয়া হয়। পতাকার মাপ ও রঙ নির্ধারণ করে পরিমার্জন করা হয় পতাকা। যা আজ বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা।

সবুজ আয়তক্ষেত্রের মাঝখানে লাল বৃত্ত, বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার এই রূপটি ১৯৭২ সালের ১৭ জানুয়ারি সরকারিভাবে গৃহীত হয়।

প্রতিবেদকের বয়স: ১৬। জেলা: কুড়িগ্রাম।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.

সর্বাধিক পঠিত

No stories found.
bdnews24
bangla.bdnews24.com