খবরাখবর

মানজুরুল ইসলাম সাজিদ (১৬), বাগেরহাট

Published: 2020-06-26 15:09:39.0 BdST Updated: 2020-06-26 15:10:44.0 BdST

ছড়া শেখার বয়সে এখন হাতে উঠে আসে স্মার্টফোন। তথ্য আহরণের বিপুল সম্ভারও খুবই সহজলভ্য। ফলে অক্ষরজ্ঞান বাড়ার সাথে সাথে বাড়ছে প্রযুক্তি জ্ঞানও। তবে কেউ কেউ আরো একটু এগিয়ে।

এমনই এক কিশোরের নাম রেহনুজ্জামান অনিরুদ্ধ। বাংলা কিংবা ইংরেজি বর্ণমালা শেখার সাথে সাথে সে রপ্ত করে ফেলেছে প্রোগ্রামিং এর ভাষা। ফলে ১৭ বছর বয়সেই ছড়ার লেখার সুকুমার বৃত্তির মতো তার ঝুলিতে যোগ হয়েছে ওয়েবসাইট তৈরির খ্যাতি। নিজের চেষ্টায় বই পড়ে, শিক্ষকদের সহযোগিতায়, ইউটিউব দেখে প্রোগ্রামিং শিখেছে সে।

কিশোর প্রোগ্রামারের কথা

রেহুন্নজামান বলে, “পঞ্চম শ্রেণিতে যখন পড়ি তখন মূলত প্রোগ্রামিং সম্পর্কে জানতে পারি। পিইসি পরীক্ষার পর ইউটিউবে ঘাটাঘাটি করে প্রোগ্রামিং শিখতে শুরু করি। কিন্তু একটা সময় গিয়ে আর শিখতে পারছিলাম না, কারণ টার্মগুলো বোঝা আমার জন্য কঠিন ছিল। বুঝিয়ে দেওয়ার কেউ ছিল না। তখন আমি এটা বাদ দেই।

“তারপর আমি যখন কলেজে ভর্তি হই, তখন দেখি তথ্য প্রযুক্তি বইতে প্রোগ্রামিং নিয়ে আলোচনা আছে সেখান থেকে আবার পুরনো শখটা জেগে ওঠে।”

ঘরবন্দি এই সময়টাকেও তাই সে কাজে লাগিয়েছে প্রোগ্রামিংয়ে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধিতে। ইতিমধ্যে এই মহামারির সময়ে করোনা বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য দিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছে সে, যার নাম কোয়ারেন্টাইন কিট।

এভাবেই একজন দক্ষ প্রোগ্রামার হওয়ার পথে হাঁটছে এই কিশোর।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত