খবরাখবর

রহিম শুভ (১৬), ঠাকুরগাঁও

Published: 2019-02-13 19:02:53.0 BdST Updated: 2019-02-13 19:02:53.0 BdST

ঠাকুরগাঁওয়ের গ্রামাঞ্চলে শিক্ষার হার বাড়াতে নিজের উদ্যোগে প্রাথমিক বিদ্যালয় গড়ে তুলেছেন এক সময়ের চা বিক্রেতা এরফান আলী।

প্রথম প্রথম অনেকেই তাকে 'পাগল' বলে ডাকতো। কিন্তু আজ তিনি একটি বিদ্যালয়ের সফল প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক। বিদ্যালয়টি জেলার প্রত্যন্ত এলাকা হরিপুরের চরভিটা গ্রামে।

২০০১ সালে এইচএসসি পাশ করে চা-পরোটা বিক্রি করতেন এরফান আলী। পিছিয়ে পড়া এই এলাকায় শিক্ষার আলো ছড়াতে ওই বছরেই নিজের ধান ক্ষেতে বাঁশের ঘর তুলে প্রতিষ্ঠা করেন চরভিটা প্রাথমিক বিদ্যালয়।

এলাকার মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ৪০জন শিক্ষার্থী জোগাড় করে ২০১১ সালে প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ থেকে পাঠদানের অনুমতি পান এরফান। পাঁচটি শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিয়ে রাত-দিন পড়ে থাকতেন বিদ্যালয়ে। পাশের হারে সাফল্য আসায় ২০১৩ সালে স্কুলটি সরকারিকরণ হয়।

স্কুলে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার বৃদ্ধি ও পড়াশুনায় মনোযোগী করতে ২০১৪ সালে নিজ খরচে চালু করেন 'মিড ডে মিল' কার্যক্রম। এতে বিদ্যালয়ে বেড়ে যায় উপস্থিতির হার। আর ২০১৫ সালে বিনা খরচে চালু করেন সান্ধ্যকালীন বাড়তি ক্লাস। সন্ধ্যা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সৌর বিদ্যুতের আলো দিয়ে এই ক্লাসগুলো করান তিনি।

বিদালয়টির চারপাশের প্রাচীরে রয়েছে নানা ধরণের শিক্ষনীয় বিষয় ও খেলার উপরকরণ। আঙ্গিনায় হাঁস মুরগি ও পুকুরে মাছ চাষ করে আয়ের টাকা প্রতিষ্ঠানের পেছনে ব্যয় করেন এরফান।

এই বিদ্যালয়ের 'মিড ডে মিল' কার্যক্রম সফল হলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তর সারা দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে তা অনুকরণ করতে পরিপত্র জারি করে।

চা বিক্রেতা এরফান আলী ২০০৮ সালে স্নাতক শেষ করে এখন ওই বিদ্যালয়ের সফল প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান শিক্ষক।

 

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত