ইন্টারনেট মানেই খারাপ নয় | hello.bdnews24.com
আমার কথা

রেজওয়ান করিম (১৭), ঢাকা

Published: 2021-09-07 13:29:28.0 BdST Updated: 2021-09-07 13:29:28.0 BdST

গেইম খেলতে কার না ভালো লাগে। হোক সেটা ফোনে কিংবা কম্পিউটারে।

প্রযুক্তির উৎকর্ষতার সঙ্গে সঙ্গে আসছে নানা গেইম। অনলাইন গেমগুলো বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই শিশু কিশোর ও তরুণদের আকর্ষিত করে। কারণ এই বয়সীদের লক্ষ্য করেই বানানো হয়। তাদের ভালো লাগার বিষয়গুলো যুক্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

আপত্তির জায়গা হলো এগুলোর বেশিরভাগই সহিংসতা শেখায়। ইতোমধ্যে দুটি অনলাইন গেইম বাংলাদেশে নিষিদ্ধও করা হয়েছে। তবে বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার করে এখনো খেলা যায় গেইমগুলো। উন্নত প্রযুক্তি ছাড়া যা আটকানো সম্ভব নয়।

এসব গেইম খেলে সহিংসতা, মারামারি, অন্যকে আক্রমণ করার প্রবণতা যেমন তৈরি হচ্ছে তেমনি দিনভর ফোন কিংবা কম্পিউটারের পর্দায় তাকিয়ে থেকে চোখের ক্ষতি হচ্ছে। যাদেরকে আমি এগুলো খেলতে দেখেছি তারা প্রত্যেকেই এক ধরনের নেশায় ডুবে গেছে। দিনের বড় একটা অংশ এটা নিয়েই থাকে, এসব নিয়েই ভাবে।

আরও ভয়ংকর কথা হলো, অনেকে বাজি ধরেও খেলে গেইমগুলো। পরাজিত হলে দিতে হয় টাকা। আবার বড় ধরনের ঝগড়াও হয়ে যায় দলের অন্যান্য সদস্যের সঙ্গে। গেইম খেলার জন্য ইন্টারনেট খরচ কিংবা বাজির টাকা জোগাড় করতে বাবা-মায়ের সঙ্গে হয় অভিমান, বিবাদ। এগুলো নিয়ে দুর্ঘটনায় ঘটে যায় অনেক সময়। যা সংবাদমাধ্যমেই দেখতে পাই আমরা।

আমি মনে করি শুধু সরকার নয়, পরিবারকেও এগিয়ে আসতে হবে৷ সরকার উদ্যোগী হয়েছে এবং এটা তাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে এটি প্রশংসার দাবি রাখে। পরিবারকে শেখাতে হবে কীভাবে একটি সুন্দর সময় কাটাতে পারে শিশু-কিশোররা। বন্ধু হয়ে তাদের পাশে থাকা, তাদের সাথে সবকিছুই ভাগাভাগি করা, তাদের কথাগুলো মনযোগ দিয়ে শোনা উচিত।

মোবাইল ফোন মানেই খারাপ জিনিস নয়, ইন্টারনেট মানেই সন্তান নষ্ট হয়ে যাবে- এমনটি নয়। আমার হাতে ছুড়ি থাকলে এটা দিয়ে আপেল কাটব নাকি কাউকে আক্রমণ করব সেটা নির্ভর করে আমার উপর। সুতরাং তাদের শেখাতে হবে কীভাবে প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহার করা যায়।

অনেকেই ইন্টারনেট ব্যবহার করে নানা রকম মানবিক কাজ করে যাচ্ছেন, কেউ অনলাইনে ব্যবসা করছেন, কেউবা ভালো কোনো উদ্যোগের সঙ্গী হচ্ছেন, কেউবা নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে বিভিন্ন কোর্স করছেন।

শিশুদের এসব বিষয়ে জানালে তারাও হয়তো আগ্রহী হবে। ইন্টারনেটের যথাযথ ব্যবহার করে নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারবে।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত