আমার কথা

সজীব ইসলাম (১৫), গাইবান্ধা

Published: 2018-12-27 20:11:21.0 BdST Updated: 2018-12-27 20:11:21.0 BdST

লেখাপড়া থেকে ছিটকে পড়ে কিশোর বয়সেই পরিবারের খরচ চালাতে কাজে নেমে পড়া কিশোরের সংখ্যা আমাদের দেশে কম নয়।

সারাদেশে অনেক শিশু কিশোরকে দেখা যায় যে বয়সটায় তাদের বিদ্যালয়ে থাকা উচিত সে সময়ে তাদের পরিবারের হাল ধরতে বিভিন্ন জায়গায় কাজ করতে যায়।

সেরকমই এক কিশোরের সাথে হঠাৎ দেখা। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানার বামনডাঙ্গায় সেই শিশুর সাথে দেখা, পিঠে ব্যাগ ঝোলানো এবং হাতে কিছু ফোলানো বেলুন। এগুলো নিয়েই রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে শিশুটি।

শিশুটিকে দেখে আগ্রহ নিয়ে তার দিকে এগিয়ে গেলাম। জিজ্ঞেস করলাম, ‘ভাইয়া তোমার বাসা কোথায়?’

সে আমাকে জানালো তার বাসা গাইবান্ধা জেলা শহরেই। লেখাপড়া ছেড়ে  এই বয়সে বেলুন বেচছে, কারণ সংসারে কর্মক্ষম ব্যক্তি বলতে ওই।

তার বাবা নেই। অনেকদিন হলো তার বাবা মারা গিয়েছেন। বাবার মৃত্যুতে তাদের পরিবারের আর্থিক অনটন শুরু হলে তার মা অন্যের বাসায় কাজ করা শুরু করে।

কিন্তু কয়েকদিন হলো তার মা খুব অসুস্থ, মায়ের চিকিৎসা খরচ চালাতে তাকে এই পথ বেছে নিতে হয়েছে। কথাগুলো বলতে বলতে ছেলেটি কেঁদে ফেললো। ও বললো, ‘আমারও ইচ্ছে হয় লেখাপড়া করার।

কিন্তু মাকে তো বাঁচিয়ে রাখতে হবেই।’

ছেলেটার মুখে এসব শুনে আমার নিজেরও অনেক খারাপ লাগল। পকেটে হাত দিয়ে খুচরা টাকা যা ছিলো তা দিয়ে দিলাম। বিনিময়ে সে আমাকে বেলুন দিতে গেলে আমি না করলাম।

বললাম, তুমি এটা অন্যের কাছে বিক্রি করলে আরোও টাকা পাবে। এই বলে ছেলেটাকে বিদায় জানালাম।

এরকম চিত্র আমাদের সমাজে প্রতিনিয়ত দেখা যায়। আর্থিক অসচ্ছলতার জন্যে ভেঙে যায় হাজারো কিশোরের স্বপ্ন। জীবন যুদ্ধে নামতে হয় কিশোর বয়সেই।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত