কথায় কথায়

বিদ্যা আহমেদ প্রাপ্তি (১৪), চট্টগ্রাম

Published: 2017-02-25 17:58:43.0 BdST Updated: 2017-02-25 17:58:43.0 BdST

ছড়ায় ছন্দে সাবলীল গতিতে সুকুমার বড়ুয়া ফুটিয়ে তোলেন জীবনের কথা। কৃত্রিমতা বর্জিত তার লেখাগুলোতে যেমন ফুটে ওঠে সমাজের সমস্যার কথা তেমনি তা ভরপুর হয়ে থাকে হাস্যরসেও।

এ লেখার স্বীকৃতি স্বরুপ ২০১৭ সালে একুশে পদক পান তিনি।

এই গুণী কবিকে নিয়ে কথা হয় তার ছেলে অরূপ রতন বড়ুয়ার সঙ্গে।

হ্যালোঃ সুকুমার বড়ুয়া কেমন আছেন?

অরূপ রতন বড়ুয়াঃ বার্ধক্যজনিত নানা অসুখ রয়েছে। ভালো করে হাঁটতে পারেন না তিনি।

হ্যালোঃ এখন উনার বয়স কত?

অরূপ রতন বড়ুয়াঃ বাবার এখন ৮০ বছর বয়স।

হ্যালোঃ উনার লেখালেখি কেমন চলছে?

 অরূপ রতন বড়ুয়াঃ এখনও ছড়া লিখেন। তবে সংখ্যায় অনেক কম। দুই এক মাসে হয়তো একটা লিখেন।

হ্যালোঃ একুশে পদক পেয়ে সুকুমার বড়ুয়ার অনুভূতি কেমন?

অরূপ রতন বড়ুয়াঃ তিনি প্রচণ্ড খুশি।

হ্যালোঃ ধন্যবাদ আপনাকে।

অরূপ রতন বড়ুয়াঃ স্বাগতম।

সুকুমার বড়ুয়ার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজানে। আমার বাড়িও চট্টগ্রাম। আমি উনাকে নিয়ে গর্বিত।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত
  • আনুমানিক দুইশ বছরের পুরনো আমগাছ

    ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রায় দুই বিঘা জুড়ে আছে একটি আমগাছ। দেখলে মনে হয় বিরাট এক আম বাগান। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, এই মহীরূহের বয়স আনুমানিক দুইশ বছরের কম নয়।

  • ধিক্কার: বঙ্গবন্ধু হত্যার খবরকে অবহেলা করেছিল যারা

    শুধু রাজনীতি নয়, সংবাদপত্রের কাজের সঙ্গেও বঙ্গবন্ধুর সম্পৃক্ততা ছিলো। জীবনের কর্মযজ্ঞে কখনও পত্রিকার মালিক, কখনও সাংবাদিক, কখনও পূর্ব পাকিস্তান প্রতিনিধি, কখনও বা পরিবেশক ছিলেন তিনি। দরকারে হকারিও করেছেন।

  • দৃষ্টিহীনতা দমাতে পারেনি রফিকুলকে

    কুড়িগ্রামের রফিকুল ইসলাম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হয়েও তার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর আবর্জনা রিসাইকেল করে তিনি নিত্য ব্যবহারের জিনিস তৈরি করে বাজারজাত করছেন।