বিশ্বজুড়ে

পৃথা প্রণোদনা (১২), ঢাকা

Published: 2014-07-04 11:55:13.0 BdST Updated: 2014-07-05 11:41:09.0 BdST

'দাঁতের জন্য হাতি মারা বন্ধ করতে কাজ করছে সংরক্ষণবাদীরা' বা 'আফ্রিকান হাতিরা হত্যাকারী' এধরণের শিরোনাম প্রায়ই আমাদের চোখে পড়ে।

ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির সাম্প্রতিক এক গবেষণায় পাওয়া যায় গত মাসে আফ্রিকার চাদে কমপক্ষে ৮৬টি ও ক্যামেরুনে ২৮টি হাতি হত্যা করা হয়। বেআইনিভাবে শিকার করে এখানে গত দশকে ৬০শতাংশের ওপর হাতি হত্যা করা হয়।

টাইম ফর কিড্‌সের একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়  ২০১২ সালে গোটা আফ্রিকা জুড়ে ৩০হাজার হাতিকে হত্যা করা হয়েছিল। বিশেষজ্ঞদের কাছে অবৈধভাবে হাতি শিকারের তথ্যের মধ্যে এটি ছিল সর্বচ্চো রেকর্ড।ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ডের ক্রাফোর্ড অ্যালান টিএফকে-কে এ তথ্যটি জানান।

চীনে অভিনব দোকানগুলোতে হাতির দাঁত দিয়ে তৈরি দামী মূর্তি ও গহনার রমরমা ব্যবসা রয়েছে। হাতির দাঁতের বহু ক্রেতারাই দৈত্যের মতো শুধু চোখের আড়ালেই থাকে না মনের আড়ালেও চলে যায়।

গবেষণায় দেখা গেছে ১০জনের মধ্যে সাত জন চীনা নাগরিকই বোঝে না যে দাঁত সংগ্রহের জন্য একটি হাতিকে মারা যেতে হয়। এ কথাগুলো বলেন বর্‌ন ফ্রি ফাউন্ডেশনের উইল ট্রেভালর্স।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে হাতির দাঁতের চাহিদা আরও বেড়ে যাওয়ায় চীনের অর্থনীতি আরও সমৃদ্ধ হয়েছে।

হাতির দাঁত নিয়ে সমস্যা

দাঁতের জন্য হাতি শিকার নতুন কোন সমস্যা নয়। ১৯৮০ সালে এক মিলিয়নের মতো হাতিকে শুধুমাত্র দাঁতের জন্য হত্যা করা হয়।

হাতির দাঁত নিয়ে  ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত যুদ্ধ চলে।

এরপর যখন একটি চুক্তি করে এক দেশ থেকে অন্য দেশে হাতির দাঁত বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয় তখন থেকে হাতির সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে।তবে সেটা খুব অল্প সময়ের জন্য।

আফ্রিকার বেশ কিছু দেশের সংগ্রহশালায় বিপুল পরিমাণ হাতির দাঁত মজুদ করা শুরু করেছিল।

সে সময়ে অনেকেই মূল্যবান হাতির দাঁতগুলো অযত্নে ফেলে রাখত। এই কারণে সেসব দেশের সরকার কিছু দেশে তাদের হাতির দাঁত বিক্রি করতে চায়। সে সময় সবচেয়ে বেশি পরিমাণ হাতির দাঁত কিনে চায়না। আজ আইনতভাবে দেশের ভেতর যে হাতির দাঁত  বিক্রি হচ্ছে দুর্ভাগ্যবশত এটি সম্ভব হয়েছে বেআইনিভাবে প্রাপ্ত হাতির দাঁতগুলো বিক্রির কারণে।

বর্তমানে হাতির ওই দাঁতগুলো বিক্রি করে দিতে সংরক্ষণবাদীরা চীনের ওপর চাপ প্রয়োগ করছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন আফ্রিকার জন্য আরও সাহায্য প্রয়োজন। আন্তজাতিক পশু কল্যাণ তহবিলের ক্যালভিন এলাই বলেন,"প্রথম সারির অশ্বারোহি সৈন্যদলের প্রশিক্ষণ ও সরঞ্জামের দিকে অনেক বেশি নজর দেয়া প্রয়োজন।"

গত বছরে কেন্দ্রীয় আফ্রিকার গেবনে আইভরি স্টক পাইলে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। এর ফলে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার মূল্যের হাতির দাঁত পুড়ে যায়।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত