শিশুর অপুষ্টি পৃথিবীর জন্য বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে: ইউনিসেফ

শিশুর অপুষ্টি পৃথিবীর জন্য এক বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে বলে মনে করছে জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক তহবিল ইউনিসেফ।
শিশুর অপুষ্টি পৃথিবীর জন্য বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে: ইউনিসেফ

ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও মহামারিতে বাজেট ঘাটতি, উভয় কারণে জীবন রক্ষাকারী পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাদ্য চিকিৎসা ব্যয় ১৬ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে বলে সংস্থাটির অভিমত।

তবে, ইউক্রেন যুদ্ধের আগেও চরম অপুষ্টিতে ভোগা শিশুদের সংখ্যা বাড়ছিল, যা পৃথিবী জুড়ে গভীর খাদ্য সংকটের পূর্বাভাস। পরিস্থিতি অরো খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে এক প্রতিবেদনে সতর্ক করেছে ইউনিসেফ।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয় যে, শিশুদের মধ্যে আশঙ্কাজনক মাত্রায় অপুষ্টি এবং জীবন রক্ষাকারী চিকিৎসা খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক ক্যাথেরিন রাসেল বলেছেন, “ইউক্রেন যুদ্ধ সারা বিশ্বে খাদ্য নিরাপত্তার উপর চাপ সৃষ্টির পূর্বেই সংঘাত, জলবায়ু পরিবর্তন, কোভিড-১৯ প্রভৃতি এই পরিবারগুলোর কাছ থেকে তাদের সন্তানদের খাওয়ানোর ক্ষমতা কেড়ে নিয়েছে।”

তিনি আরো বলেন যে, “খুব তারাতারি পৃথিবী প্রতিরোধযোগ্য শিশুমৃত্যু আর অপুষ্টিতে ভোগা শিশুদের একটি অগ্নিগর্ভে পরিণত হচ্ছে।”

বর্তমানে অপুষ্টির শিকার কমপক্ষে এক কোটি শিশু বা প্রতি তিন জনে দুই জন শিশুর উচ্চ ক্যালোরি সম্পন্ন খাদ্য প্রাপ্তির সুযোগ নেই। ইউনিসেফ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, যুদ্ধ-বিগ্রহ, মহামারি থেকে উত্তরণের সংগ্রাম, কিছু দেশে জলাবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্রমাগত খড়া ও নানা কারণ অপুষ্টিতে ভোগা শিশুদের আন্তর্জাতিক হার বাড়িয়ে দিচ্ছে।

শিশুরা মাত্রাতিরিক্ত অপুষ্টিতে ভোগার কারণে তাদের উচ্চতার তুলনায় তারা অত্যন্ত শুকনা হয়। পাঁচ বছরের কম বয়সী এক কোটি ছত্রিশ লাখ শিশু এ জাতীয় অপুষ্টির শিকার। এই শিশুদের প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে এক জন মারা যাচ্ছে বলে সংস্থাটি জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে দক্ষিণ এশিয়াকে প্রকট অপুষ্টির কেন্দ্র হিসেবে উল্লেখ করে বলা হয়, এখানে প্রায় ২২ জনে একজন ভয়ঙ্কর অপুষ্টির শিকার। যা সাব-সাহারা আফ্রিকার চেয়ে তিন গুণ বেশি।

প্রতিবেদনটিতে এই বলে সতর্ক করা হয়েছে যে, পরিস্থিতি মোকালিায় যথেষ্ট সাহায্য নেই। আগামীতে এই চিত্র আরো খারাপ হতে পারে। তাই, এই সংকট থেকে মুক্তি পেতে নানান পদক্ষেপ গ্রহণের আহবান জানিযেছে সংস্থাটি।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.

সর্বাধিক পঠিত

No stories found.
bdnews24-web.quintype.io