বিশ্বজুড়ে

তাশফিয়া তারান্নুম তিফা (১৩), শেরপুর

Published: 2019-11-03 18:58:32.0 BdST Updated: 2019-11-03 18:58:32.0 BdST

মৃতদের দিবস বা দ্য ডে অব ডেড হচ্ছে মূলত মেক্সিকান একটি ধর্মীয় দিবস। স্প্যানিশে এই দিনটি 'দিয়া দে মরতো' নামে পরিচিত।

বিশেষত মধ্য ও দক্ষিণ মেক্সিকান অঞ্চলে এটি একটি বিশেষ ছুটি হিসেবে পালন করে।

১৯৮০ সালের দিকে এটি বড় বড় শহরে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। ষোড়শ শতাব্দীতে স্প্যানিশ উপনিবেশিকরণের আগে, গ্রীষ্মের শুরুতে এটি উদযাপিত হতো। ধীরে ধীরে এটি ৩১ অক্টোবর, পয়লা নভেম্বর, দোসরা নভেম্বরের সাথে যুক্ত হয়েছিল। এর কারণ ওয়েল্ড ক্রিশ্চান ট্রাইডিয়ামের আ্যলহালেটিভ; অল সেইন্টস' ইভ, অল সেইন্টস' ডে এবং অল সউলস' ডে ও এই দিনটি একসাথে মেলানো হয়েছিল।

এই দিনটির মূল বিষয়বস্ত হচ্ছে 'মৃত্যু' কিন্তু উদযাপনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে পরিবারের মৃত সদস্য এবং আপনজনদের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধার বহিঃপ্রকাশ ঘটানো। এই দিনটির মাধ্যমে সবাই জীবন এবং মৃত্যুকে উদযাপন করে।

তারা বিশ্বাস করেন, এই বিশেষ দিনটিতে পরপার ও পার্থিব জগতের মাঝামাঝি একটি পথ তৈরি হয়। যার মাধ্যমে সকলের মৃত স্বজনের আত্মা দীর্ঘ রাস্তা অতিক্রম করে পরিবারের সাথে দেখা করতে বাড়িতে আসেন তাদের জন্য আশীর্বাদ নিয়ে।

এই দিনটিকে উদযাপন করতে কিছু ঐতিহ্যবাহী উপাদান রয়েছে। ফুল, মোমবাতি, মেক্সিকোর ঐতিহ্যবাহী একটি  রুটিজাতীয় খাদ্য দিয়ে উদযাপন করা হয়। এছাড়া সজ্জিত কঙকালের কপালের উপর আপনজনের নাম লিখে এবং পূজাবেদীগুলোতে প্রিয়জনের ছবি রাখে।

পরপার থেকে দীর্ঘ যাত্রা শেষে বাড়িতে ফেরার পর প্রিয়জনের আত্মার তেষ্টা মেটাতে পূজাবেদীতে বিভিন্ন পানীয়ও রাখতে হয়।

এই দিনে প্রিয়জনের আত্মার দীর্ঘ যাত্রার পথকে সুন্দর এবং ভালোবাসায় পরিপূর্ণ করে তুলতে বাড়ির প্রাঙ্গনসহ অন্যান্য রাস্তায় ফুলের পাপড়ি বিছানো থাকে।

এই ঐতিহ্যটি ২০০৮ সালে, ইউনেস্কো কর্তৃক মানবতার অদম্য সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের প্রতিনিধি তালিকায় যুক্ত হয়।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত