রবীন্দ্র কাচারি বাড়ি (ভিডিওসহ) | hello.bdnews24.com
অন্য চোখে

আররিফিন মুন (১৩), সিরাজগঞ্জ

Published: 2021-11-12 00:18:29.0 BdST Updated: 2021-11-12 00:22:25.0 BdST

‘‘নদী ভরা কূলে কূলে, ক্ষেত ভরা ধান।
আমি ভাবিতেছি বসে কী গাহিব গান,
কেতকী জলের ধারে ফুটিয়াছে ঝোপে ঝাড়ে,
নিরাকুল ফুলভারে বকুল-বাগান।
কানায় কানায় পূর্ণ আমার পরাণ।’’

শাহজাদপুরে বসে ভরা ভাদরে কবিতার এই পংক্তিগুলো লিখেছিলেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

রবীন্দ্রনাথ ১৮৯০ থেকে ১৮৯৬ মোট সাত বছর জমিদারির কাজে শাহজাদপুরে আসা-যাওয়া এবং অবস্থান করেছেন। তার এই শাহজাদপুরে আসা-যাওয়া শুধু জমিদারি তত্ত্বাবধানের বস্তুনিষ্ঠ প্রয়োজনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেনি। এখানে বসে তিনি অনেক অসাধারণ কালজয়ী সাহিত্য রচনা করেছেন।

সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুরের এই প্রাচীন ঐতিহ্যের ধারক বাহক এই ভবনটি জাদুঘর হিসেবে সবার জন্য এখন উন্মুক্ত। প্রতিদিনই দর্শনার্থীরা এখানে আসে।

চট্রগ্রাম থেকে রবীন্দ্র কাচারি বাড়ি দেখতে এসেছেন আহসান হাবীব মুন্না। রবীন্দ্রনাথের কাচারি বাড়িতে এসে তিনি মুগ্ধ।

রবীন্দ্র কাচারিবাড়িটিতে বর্তমানে একটি আধুনিক অডিটোরিয়াম নির্মাণ করা হয়েছে। কৃত্রিমভাবে তৈরি করা হয়েছে মনমুগ্ধকর ফুলের বাগান। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এখানেই বসে লিখেছেন তার বিখ্যাত কবিতা তালগাছ।

পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় করার জন্য মাটিতে কৃত্রিমভাবে তৈরি করা হয়েছে তালগাছের প্রতিকৃতি দৃষ্টিনন্দন তালগাছ। রবীন্দ্র কাচারি বাড়িতে চোখে পড়বে ব্রিটিশ আমলের সেই নিলকর্দের নীলকুঠি। অনেক পুরাতন হওয়ায় এটি এখন পরিত্যক্ত।

রবীন্দ্র কাচারিবাড়িতে ঢুকতে বিশাল একটা গেটের রয়েছে গেটের পাশেই রয়েছে টিকিট কাউন্টার। এখানে জন প্রতি টিকিটের মূল্য ২০  টাকা।  তবে পাঁচ বছরের কম বয়সীদের জন্য কোনো টিকিটের প্রয়োজন পড়ে না।  আর বিদেশী দর্শনার্থীদের জন্য টিকিটের মূল্য ১০০ টাকা।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত