অন্য চোখে

রুনায়েদ নিকি (১৬), ঢাকা

Published: 2019-12-26 17:44:36.0 BdST Updated: 2019-12-26 17:55:19.0 BdST

সন্ধ্যে হলেই গ্রামে বা শহরের বিভিন্ন ক্লাবে বা চায়ের দোকানে পাশে জমে উঠত ক্যারম খেলা। কিন্তু এখন এমন দৃশ্য হুট করেই চোখে পড়ে না।

ক্লাবগুলোতে আগে বেশ আয়োজন করে ক্যারাম খেলা হতো। এছাড়াও গ্রাম্য বাজারে থাকতো ক্যারাম বোর্ড খেলোয়ারদের চারপাশ ঘিরে থাকতো দর্শক। কখনও এসিড বোরিক আবার কখনও আটা মেখে চলত খেলা।

খেলার উত্তেজনা কোনো কোনো সময় বাঁক নিত হাতাহাতিতে। তবুও ক্যারামে ছিল আলাদা প্রাণ। শহরে এই খেলা হতো বাড়ির ছাদে বা বদ্ধ রুমে। আবার কখনও ভাইবোনেরা মিলে বসে পড়তো ক্যারামের নেশায়। যা এখন প্রায় সবই অতীত।

রাজধানীর বাসাবোর একটি ক্লাবে এখনও চলে ক্যারাম খেলা। দর্শকও থাকে বেশ। তবে আগের মতো উচ্ছ্বাসটা নেই। বাসাবোর বাসিন্দা আরিফ সেখানে খেলতে যান।

তিনি বলেন, “কাজের ফাঁকে ফাঁকে সন্ধ্যার পরে ক্যারাম খেলি বন্ধুদের সাথে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সময় কাটানোর চেয়ে বন্ধুদের সাথে ক্যারাম খেলে সময় কাটানো ভালো।”

স্মার্টফোনের আধুনিক সংস্করণে খেলাটি থাকলেও, ক্যারামের বোর্ড ঘিরে যে আনন্দ এবং উত্তেজনা হতো, তা আর দেখা যায় না।

খেলোয়াড় কামরুল ইসলাম বলেন, “তরুণ প্রজন্ম নির্ভরশীল হচ্ছে ফেইসবুক, সামাজিক মাধ্যম ট্যাব ইত্যাদির উপর।”

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত