অন্য চোখে

মারুফ হোসেন (১৬), ঢাকা

Published: 2019-12-14 18:03:52.0 BdST Updated: 2019-12-14 18:05:10.0 BdST

বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন চর্যাপদ সংগীতকে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছেন শিল্পী অন্তর সরকার এবং তার দল।

বাংলা সংস্কৃতির একটি আদি এবং ঐতিহ্যবাহী সংগীত হচ্ছে চর্যাপদ। শিল্পী অন্তর সরকার এবং তার দল এই সংগীতকে সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে সংগ্রাম করে চলেছেন।

আবিষ্কারক হরপ্রসাদ শাস্ত্রীর চর্যাপদগুলির আধুনিক বাংলায় রূপ দিয়েছেন বাংলা একাডেমির সহকারী পরিচালক ড. সায়মন জাকারিয়া।

অন্তর সরকারের বাড়ি মানিকগঞ্জ হলেও প্রতি সপ্তাহের বুধবার ছুটে আসেন সোহরাওয়ারদী উদ্যানে। ভাবনগর সাধুসঙ্গ নামক চত্বরে এই শিল্পী এবং অন্যান্য ভক্ত অনুরাগীরা ভাসেন সুরের মূর্ছনায়।

শিল্পী অন্তর সরকার বলেন, “আমি আগে বাউল গান গাইতাম, এখন চর্যাপদ গাই।

“আমরা ড. সায়মন জাকারিয়া গুরুজীর মাধ্যমে জেনেছি এটা বাংলা সাহিত্যের আদি নিদর্শন। আমরা আদি ভাষার গানটাও করি আবার আধুনিকটাও গাই।”

নিজেদের সুরে এই গানকে তারা নিয়ে যেতে চান বাংলাদেশের সব জায়গায়। সময় পেলেই অনেকেই ছুটে আসেন এই আদি সংস্কৃতির গানে গলা মেলাতে।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যায় থেকে পড়াশোনা শেষ করা অমল কান্তি সেন এই দলে বাঁশি বাজান। তিনি বলেন, “ভাবনগর সাধুসঙ্গে আসার মূল কারণ হচ্ছে, বাংলার আদি নিদর্শন চর্যাপদের নবরুপায়ণ করা হয়েছে এখানে। এই গানগুলো সত্যিই অসাধারণ।”

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত