অন্য চোখে

রাফসান নিঝুম (১৭), ঢাকা

Published: 2019-10-07 18:41:18.0 BdST Updated: 2019-10-07 18:41:18.0 BdST

একটি শিশুর জন্মের পর তার একটি সুস্থ পরিবেশ পাওয়ার অধিকার রয়েছে। একটি শিশু বড়দের কাছ থেকে কী আশা বা প্রত্যাশা করে? একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ, একটি সুন্দর পরিবেশে বসবাস? কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী তাদের জন্য অপেক্ষা করছে খুবই খারাপ একটি সময়।

বর্তমানে আমাদের সবচেয়ে বড় যে শত্রু ওত পেতে রয়েছে তা হচ্ছে "জলবায়ু পরিবর্তন"। এই জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী কিন্তু আমরা মানুষেরা। অর্থাৎ পৃথিবীর মানুষের কৃতকর্মের ফলে পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। 

আমাদের দৈন্দদিন জীবনে আমরা বিভিন্নভাবে পরিবেশকে ক্ষতিগ্রস্ত করে চলেছি। যার ফলে ধীরে ধীরে জলবায়ু পরিবর্তন হচ্ছে। উত্তর ও দক্ষিণ মেরুর বরফ গলতে শুরু করেছে, যা সমুদ্র স্তরের উচ্চতা বাড়িয়ে দিচ্ছে। যার ফলে ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, বন্যা, ক্ষরা দেখা দিচ্ছে। 

জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক জাতিসংঘের আন্তঃসরকার প্যানেল (আইপিসিসি) তাদের চতুর্থ মূল্যায়ন প্রতিবেদনে আশঙ্কা জানিয়েছে যে, এই শতাব্দীর মধ্যে বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ এলাকা ডুবে যেতে পারে৷  দেশের ১৯টি জেলার প্রায় ৬০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা ওই ডুবে যাওয়ার ঝুঁকি আছে৷ এ কারণে ঘর হারাবে প্রায় দুই কোটি মানুষ৷  

বিবিসি বাংলার একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যে, বর্তমানে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে প্রায় প্রতি সাড়ে নয় সপ্তাহে একটি করে সাইক্লোন তৈরি হয় এবং এভাবে চলতে থাকলে ২০৫০ সালে প্রতি সাত সপ্তাহে সমুদ্রতে একটি করে সাইক্লোন তৈরি হবে। 

শিল্পবিপ্লবের কারণে বিশ্ব এখন অনেক উন্নত। তবে, এ শিল্পবিপ্লবের সময় গাছপালা কেটে বন উজার করা হচ্ছে। যার ফলে বায়ুমণ্ডলে অক্সিজেন ও কার্বন-ডাই-অক্সাইডের মানের তারতম্য হচ্ছে।

এছাড়া প্লাস্টিক-পলিথিন উৎপাদন, পোড়ানো, জ্বালানী সাশ্রয় না করা, কল-কারখানা, গাড়ি ও ইট-ভাটার ধোঁয়াসহ নানা কারণে বাড়ছে এ সমস্যা। যার ফলে গ্রিন হাউজ ইফেক্টের মতো সমস্যায় পড়ছে সারা বিশ্ব। 

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে, গৃহহারা হয়ে পড়েছে অনেকেই। যার মধ্যে রয়েছে অনেক শিশু। এই জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে শিশুরা পড়ছে নানা রকম ঝুঁকিতে। 

এভাবে চলতে থাকলে মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়বে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের শিশুরা। বর্তমান পৃথিবী শিশুদের জন্য বাসযোগ্য নয়, তবুও আমরা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা চিন্তা করছি না। 

আমাদের উচিত ছিল, এই অনাগত ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর, সবুজ পৃথিবী গড়ে তোলার। দিনশেষে আপনারা কী জবাব দেবেন এই ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে? তাদের জন্য এই সুন্দর পৃথিবী, এই সুন্দর পরিবেশের কিছুটা অন্তত অবশিষ্ট রাখুন।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত