অন্য চোখে

শেখ নাসির উদ্দিন (১৫), টাঙ্গাইল

Published: 2018-07-18 19:24:08.0 BdST Updated: 2018-07-18 19:27:16.0 BdST

প্রায়ই আমরা জমজশিশু জন্মাতে দেখি। কখনো কখনো দুইয়ের বেশি শিশু প্রসব করার ঘটনাও শোনা যায়। সম্প্রতি টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে পরপর তিন নবজাতকের জন্ম দেন বানাইল গ্রামের সুবর্ণা বেগম।

একের বেশি মানব সন্তান জন্মানো স্বাভাবিক ঘটনা নয় উল্লেখ করে কুমুদিনী উইমেন্স কলেজ হাসপাতালের স্ত্রী রোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বিলকিস বেগম চৌধুরী জানান, একসঙ্গে অধিক শিশু জন্মানো মা ও শিশু দুজনেরই জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।

একাধিক শিশু গর্ভধারণে মায়ের যত ঝুঁকি

একাধিক শিশুর জন্ম নিয়ে বিলকিস বেগম চৌধুরী বলেন, “তিন শিশুর এক সঙ্গে জন্ম কোনো স্বাভাবিক ব্যাপার নয়। যাদের দীর্ঘদিন বাচ্চা হয় না তাদের আমরা কিছু ঔষধ দিয়ে থাকি। এই ঔষধ ব্যবহারের ফলে বা মা-বাবার বংশগতিতে এমন ইতিহাস থাকলেও একাধিক বাচ্চা একসঙ্গে জন্ম নিতে পারে।

“একাধিক শিশু জন্মদানের ফলে মা ও নবজাতকদের বিভিন্ন সমস্যা হয়ে থাকে। মায়ের অতিরিক্ত বমি হওয়া, রক্তচাপ বেড়ে যাওয়া, এবং গর্ভাবস্থায় শিশুর স্থান সংকুলান না হওয়াতে শিশুর ওজন কম বেশি বা আকারে ছোট-বড় হতে পারে।  

“নির্ধারিত সময়ের আগে সন্তান প্রসব হতে পারে, পানি ভেঙে যেতে পারে। এছাড়া প্রসবকালীন সময় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হবার সম্ভাবনা দেখা দেয়।

কেন অস্ত্রোপচার প্রয়োজন

“মায়ের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেড়ে যায়। শিশুরও নানাবিধ সমস্যা হতে পারে। যেমন, এক সাথে জোড়া লেগে যাওয়া। এক্ষেত্রে সময়ের চেয়ে আগেই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে বা স্বাভাবিকভাবেও প্রসব হওয়া সম্ভব।”

একাধিক সন্তান জন্মালে করণীয় 

“তিন সন্তানের জন্য মায়ের বুকে পর্যাপ্ত পরিমাণ দুধ নাও থাকতে পারে। এক্ষেত্রে প্রয়োজনে শিশুদের বাড়তি খাবারের জোগান দিতে হবে। শিশুদের লালনপালনে পরিবারের অন্যদের সহযোগিতা প্রয়োজন।”   

মা ও শিশুরা হাসপাতালে বেশ সুস্থ আছেন বলেও জানান বিলকিস বেগম চৌধুরী।     

বাবা-মাসহ পরিবারের সবাই একসঙ্গে তিন শিশু পেয়ে খুব খুশি। তিনটি সন্তানের মধ্যে একটি ছেলে ও দুইটি মেয়ে সন্তান।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত