খবরাখবর

রাফসান নিঝুম (১৭), ঢাকা

Published: 2020-06-30 19:11:37.0 BdST Updated: 2020-06-30 19:42:45.0 BdST

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় অনলাইন ক্লাস এখন স্বাভাবিক হয়ে উঠেছে। তবে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এতে কীভাবে অভ্যস্ত হতে পারেন, কীভাবে শিশুদের কাছে অনলাইন ক্লাসকে আরো গ্রহণযোগ্য করা যায় তা নিয়ে হ্যালোর সঙ্গে কথা বলেছেন একজন শিক্ষক।

রাজধানীর মতিঝিল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির শিক্ষক ফাহাদ ইবনে হাই। তিনি ২০১৪ সালে প্রশিক্ষণের জন্য দক্ষিণ কোরিয়া যান। সেখানেই তিনি অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে জানতে পারেন। এরপর নিজের দেশে শিক্ষার্থীদেরও এর আওতায় আনার চেষ্টা শুরু করেন।

এরপর তিনি কিশোর বাতায়ন, মতিঝিল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের হয়ে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার পাশাপাশি ক্লাস নিয়েছেন সংসদ টিভিতে। নিজের অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার অভিজ্ঞতা নিয়ে হ্যালোর নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এই শিক্ষক।

তিনি বলেন, “অনলাইন শিক্ষা পদ্ধতিতে একজন শিক্ষার্থী যেকোনো সময়, যেকোনো পরিস্থিতিতে তার ইচ্ছা মতো ক্লাস করার সুযোগ পায়। অনলাইনে পড়ার সুযোগ থাকায়, যখন খুশি যে বিষয়ে খুশি তখন তা পড়া যায়। গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাদের হাতে স্মার্টফোন বা ইন্টারনেট সেবা নেই তাদের জন্য রেডিওতে অডিও কন্টেন্টের মাধ্যমে পড়ালেখা শুরু করার পরিকল্পনা করছে সরকার।”

শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাস করে পড়াগুলো বুঝতে পারছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে শিক্ষক ফাহাদ বলেন, "শিক্ষকরা যখন শ্রেণিকক্ষে ক্লাস নেন, অনেক শিক্ষার্থীরাই কিন্তু মনোযোগ ধরে রাখতে পারে না। এতক্ষণ ক্লাস, দীর্ঘক্ষণ একটার পর একটা ক্লাস চলতেই থাকে। যত ভালো শিক্ষকই ক্লাস নিন না কেন! কিন্তু এখানে অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে ভিডিও কন্টেন্ট যেহেতু থেকে যাচ্ছে, শিক্ষার্থীরা যখন খুশি তখন কিন্তু ক্লাসটা দেখতে পারে।

“অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা বা অনলাইনে ক্লাস করানো শিক্ষক-শিক্ষিকাদের জন্যও নতুন একটি বিষয়।”

শিক্ষকরা কীভাবে নতুন এই প্রযুক্তির সাথে মানিয়ে নিতে পারছে এই ব্যাপারে জানতে চাইলে শিক্ষক ফাহাদ বলেন, "সৃজনশীল মানুষগুলো কিন্তু যেকোনো পরিবর্তনকে পজিটিভলি নেয়, ইতিবাচক ভাবে নেয়। আর শিক্ষকরা হচ্ছে সবচেয়ে সৃজনশীল মানুষ এই সমাজের। এই পেন্ডামিক সময়ে অনলাইন ক্লাস নিচ্ছে, অনেকের বাসায় কিন্তু মোবাইল নেই, বোর্ড নেই, ইন্টারনেট সুবিধা নেই। তারপরেও আমাদের শিক্ষকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে ক্লাস নিচ্ছেন।"

 

 

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত