খবরাখবর

সাইদুর রহমান সাগর (১৬), ঢাকা

Published: 2019-10-22 16:08:45.0 BdST Updated: 2019-10-22 16:10:12.0 BdST

বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানার সামনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের লেখাপড়ার সুযোগ করে দিয়েছে সেভ দ্যা ফিউচার ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

‘মানবতার স্পর্শে দূর হোক অন্ধকার’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে ২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর এই স্কুলটি যাত্রা শুরু করে।

রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সাতটি স্কুল পরিচালনা করে আসছে সংগঠনটি।

বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী তামিম হ্যালোকে বলে, “আমরা দুই ভাই এখানে আসি। এখানে পড়তে আমার ভালো লাগে।”

একই শ্রেণির আরেক শিক্ষার্থী জান্নাত বলে, “স্যারেরা আমাদের অনেক ভালো পড়ায়।”

হ্যালোকে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সাইফ বলে, “এখানকার স্যার ম্যাডামরা আমি যা বুঝি না তা বুঝিয়ে দেয়।”

এখান থেকেই বাংলা, অংক, ইংরেজি শিখেছে তানিয়া আক্তার। সে বলে, “আমি রিডিং পড়া এবং লেখা শিখছি।” 

জানা যায়, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও চাকুরিজিবীরা নিজ উদ্যোগেই পড়াচ্ছেন এসব শিশুদের। ৬০ জন শিক্ষার্থীর জন্য রয়েছে ৪০ জন শিক্ষক।

ডিপ্লোমা নার্সিং পড়া শেষ করে বেকার জীবন কাটাচ্ছিলেন পারভীন আক্তার। কিন্তু ঘরে বসে থাকতে চাননি। অসহায় পথশিশুদের পড়াচ্ছেন তিনি।

তিনি হ্যালোকে বলেন, “একটা সূত্র ধরে এখানে আসা। আমার ভালো লাগা থেকেই এদের সময় দিচ্ছি।”

চাকরির পাশাপাশি এসব সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পড়াচ্ছেন রাইন। তিনি বলেন, “মানুষের জন্য কিছু একটা করার তাড়না থেকেই এখানে আসা, এদের সাথে সময় কাটাতে ভালো লাগে।”

স্বেচ্ছাসেবক শিক্ষকদের দেওয়া মাসিক ১০০ টাকায় এসব শিশুদের শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনা করা হয় বলে জানান সেভ দ্যা ফিউচার ফাউন্ডেশনের মিরপুর শাখার সভাপতি নাঈম সরদার।

তিনি বলেন, “এই উন্মুক্ত স্কুলগুলোকে স্থায়ী ক্যম্পাসে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে আমাদের।”

সপ্তাহের দুইদিন ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত চলে তাদের এ শিক্ষাকার্যক্রম।

 

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত