খবরাখবর

রাফসান নিঝুম (১৭), ঢাকা

Published: 2019-10-15 16:27:08.0 BdST Updated: 2019-10-15 17:50:16.0 BdST

মহাকাশ নিয়ে শিশুদের আগ্রহ বাড়ানো এবং তাদের চিন্তা ভাবনাকে বিকশিত করতে রাজধানীর ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘স্পেস ইনোভেশন ক্যাম্প’ এর আয়োজন করা হয়।

১১ ও ১২ অক্টোবর বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের উদ্যোগে শিশুদের নিয়ে এই প্রথমবারের মতো দুইদিন ব্যাপী এই ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়।

নার্সারি থেকে দশম শ্রেণির প্রায় ৫০০জন শিক্ষার্থী ক্যাম্পে অংশ নেয়।

আয়োজনটিতে রকেট মেকিং ও লঞ্চিং ওয়ার্কশপ, স্পেস রোবট মেকিং ওয়ার্কশপ, অ্যাস্ট্রোনট ট্রেনিং, স্পেস প্রোগ্রামিং, স্পেস এডুকেশন, স্পেস লাইফ, টিম ওয়ার্ক, টিম বিল্ডিং স্কিল ডেভেলপমেন্ট, লিডারশিপসহ আরও নানা রকম সেশন ছিল।

দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী রাফিয়া রাফা বলে, “আমার ভালো লাগছে প্রোগ্রামটা আর আমি এখানে রকেট বানানো শিখেছি।”

নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী সাইদ শিহান বলে, “এখান থেকেই আমরা অল্প অল্প  করে অভিজ্ঞতা অর্জন করছি। এখানে রকেট বানানো নিয়ে শিখছি। ছোটবেলায় ইচ্ছা ছিল পাইলট হব। আস্তে আস্তে সেটা স্পেস ইঞ্জিনিয়ারিংএ রূপ নিয়েছে। স্বপ্ন আছে নাসায় যোগ দেওয়ার।”

দুইদিনের ক্যাম্পে শিশুদের বানানো ওয়াটার রকেট একে একে উৎক্ষেপণ করা হয়।

অভিভাবকরাও এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। এই ক্যাম্পে অংশ নিতে ছেলে আহনাফ কাউসার নামের এক শিশুকে  নিয়ে এসেছেন ওর বাবা মো. কাওসার উদ্দিন।

তিনি বলেন, “বাইরের দেশে শিশুরা এ ধরণের অনেক প্রোগ্রামে অংশ নিতে পারে। কিন্ত আমাদের দেশে এধরণের ক্যাম্পিংগুলো ছিল না। তাই এটা নতুন ধরনের একটা অভিজ্ঞতা হবে। সাইন্স সম্পর্কে জানবে সাথে একটা আগ্রহ তৈরি করবে। ”

বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের ফাউন্ডার আরিফুল হাসান অপু বলেন, “শিশু কিশোরদের মহাকাশ বিজ্ঞান নিয়ে নতুন নতুন আবিষ্কারে উৎসাহিত করার মাধ্যমে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ থেকেই স্পেস সায়েন্টিস্ট ও রকেট সায়েন্টিস্ট গড়ে তোলার লক্ষ্যে আগামী ১০ বছরের একটা পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে।”

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চৌধুরী মফিজুর রহমান বলেন, “আজকের বাচ্চারা আগামীদিনের ভবিষ্যৎ। বাচ্চাদের জন্য এই আয়োজন সত্যি প্রশংসনীয়। আজকের আয়োজনের মাধ্যমে বাচ্চারা স্পেস, রোবট, রকেট নিয়ে আরোও আগ্রহী হয়ে উঠবে।”

সিনেসিস আইটি, সিসটেক ডিজিটাল, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, স্পেস এন্ড রকেট সেন্টার বাংলাদেশ, ঢাকা কাস্ট এবং লাইভ টু ওয়েব এই আয়োজনে সহায়তা করে।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত