খবরাখবর

 অনিন্দ্য পাল চৌধুরী (১৭), নেত্রকোণা

Published: 2018-09-08 19:48:31.0 BdST Updated: 2018-09-08 19:48:48.0 BdST

বর্ষায় নেত্রকোণায় হাওরাঞ্চলের মানুষের চলাচলের একমাত্র ভরসা হচ্ছে নৌকা।

হাজারো মানুষের চলাচলের এই পথে দুর্ভোগের শেষ নেই। নৌপথের এই যাত্রীদের নিরাপত্তাসহ কোনো সুবিধা নিশ্চিত করতে নজর নেই কারও। তবে জেলা পরিষদের দায়িত্বশীলরা বলছেন, দ্রুতই তারা যাত্রীদের দুর্ভোগ লাঘবে পদক্ষেপ নেবেন।

নেত্রকোণার মদন, মোহনগঞ্জ, খালিয়াজুরি উপজেলাসহ  কলমাকান্দা উপজেলার একাংশ হাওর অধ্যুষিত এলাকা। এই হাওর পাড়ের অন্তত সাত লাখ মানুষ ছাড়াও সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা, শাল্লা ও জামালগঞ্জের মানুষের যোগাযোগ এই হাওরের নৌপথেই। এখানে রয়েছে ছোটবড় অন্তত ৩০টি নৌঘাট । হাওরের বেশ কয়টি  ঘাট নেত্রকোণা জেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রণে। লাখ লাখ মানুষ এই ঘাট দিয়ে চলাচল করে।

মদন উপজেলার গোবিন্দশ্রী গ্রামের আমীল আলী বলেন, হাওরাঞ্চলে থাকা কোনো ঘাটেই যাত্রী ছাওনি বা সুপেয় পানির ব্যবস্থা নেই। রোদ বৃষ্টি- ঝড়ে, শিশু বৃদ্ধসহ সব বয়সের মানুষই দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে চলাচল করছেন।

খালিয়াজুরী উপজেলার সদরের বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম তালুকদার। তিনি বলেন, রাত আটটার পর  নৌযান বন্ধ থাকায় দুর দুরান্ত থেকে আসা যাত্রীরা পড়েন বিপাকে।

হাওরে নৌযান চালান আলী আহমেদ।  তিনি বলেন, দুর্ঘটনায় পড়লে যাত্রীসহ তাদের রক্ষায় কেউই নেই। তার দাবি নৌপথের উন্নয়নে যেন সরকার পদক্ষেপ নেয়।

নেত্রকোণা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার রায় যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা অবগত আছেন জানিয়ে বলেন, যাত্রী ছাউনি স্থাপনসহ দুর্ভোগ কমাতে বেশকিছু পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে সমন্বয় করে সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হবে। নৌযানের নিরাপত্তা বিধানেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেন তিনি।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত