খবরাখবর

তন্ময় বিশ্বাস (১৬), যশোর

Published: 2018-04-22 17:55:36.0 BdST Updated: 2018-04-22 18:01:00.0 BdST

নতুন প্রশ্ন কাঠামো সম্পর্কে বিভ্রান্তিতে ভুগছে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা।

সরকারিভাবে ঘোষণা দেওয়া হলেও, স্কুল পর্যায়ে নতুন প্রশ্ন কাঠামো অনুযায়ী যশোরের শিক্ষককরা প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য অল্প সময় পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

শিক্ষার্থীদেরও নতুন ধরনের প্রশ্নের সাথে যথাযথ অভ্যস্ততা গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি বলে সম্প্রতি হ্যালোকে জানান, যশোর জিলা স্কুলের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক মি. মনিরুজ্জামান।

যশোর জিলা স্কুল, যশোর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, যশোর কালেক্টরেট, যশোর পুলিশ লাইন স্কুল, দাউদ পাবলিক স্কুলের বাইরে কয়েকটি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এখনও এ বিষয়ে আঁধারে। তারা নতুন প্রশ্নের ধরন সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা বা চর্চার সুযোগ পায় নি, জানা যায় শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে।   

এছাড়া অভিভাবকেরাও এ বিষয়ে বেশ চিন্তিত। কারণ ইতোমধ্যে চলতি বছরের প্রায় চার মাস পুরানো প্রশ্ন পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীরা প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। তাই প্রশ্ন কাঠামোর সাম্প্রতিক পরিবর্তন শিক্ষার্থীদের ফলাফলের উপর প্রভাব ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা।

যশোর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শেখ অহিদুল আলম অভিভাবকদের আশ্বস্ত করেছেন, নতুন প্রশ্ন কাঠামো শিক্ষার্থীদের জন্য সহজ এবং উপযোগী হবে।

প্রশ্নফাঁস রোধ এবং শিশুদের মেধা বিকাশের উপর গুরুত্ব দিয়ে প্রশ্নে বহুনির্বাচনী অংশের পরিবর্তে শতভাগ সৃজনশীল প্রশ্নের কথা বলা হয়েছে, নতুন কাঠামোতে। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির নির্দেশনা অনুসারে নতুন প্রশ্ন কাঠামো তৈরি করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, যশোর পোস্ট অফিস পাড়া এলাকার একটি কম্পিউটার ও ফটোস্ট্যাট দোকান থেকে পরীক্ষা শুরুর তিন দিন পূর্বেও পরীক্ষার প্রশ্ন কাঠামো ও পদ্ধতি সম্পর্কিত নিয়ম প্রিন্ট করেছেন যশোরের কয়েকটি স্কুলের শিক্ষক। 

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত