খবরাখবর

শেখ শরফুদ্দিন রেজা (১৭), জুবায়ের হাসান (১৬), ঢাকা

Published: 2018-04-10 21:50:47.0 BdST Updated: 2018-04-10 22:06:39.0 BdST

ইন্টারনেটে বিশ্বের সব বয়সীদের জন্যে শিক্ষা ও দক্ষতার সুযোগ করে দিচ্ছে বাংলাদেশের অনলাইন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান “রেপটো এডুকেশন সেন্টার।”

অনলাইনে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিষয়ে কোর্স করানো, কোর্সের দক্ষতার ভিত্তিতে সনদ প্রদান ও কাজের জন্য সুপারিশ প্রদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দক্ষতাকে কার্যকরী করে তুলছে প্রতিষ্ঠানটি। 

ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়ে এ ওয়েব সাইটের যাত্রা শুরু ২০১৫ সালে। সাইটটির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সারা বিশ্বের যে কোনো জায়গা থেকে ঘরে বসেই কোর্স করার মাধ্যমে অনলাইন বিষয়ক দক্ষতা বাড়াতে এবং করতে পারবে। বর্তমানে তাদের দুশো ২১ জনের মতো অনলাইন শিক্ষক ও প্রায় ৪৫ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে।

তরুণদের উদ্যোগে নির্মিত প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ স্টার্টআপ অ্যাওয়ার্ড ২০১৭, সুইস এম্বেসি অ্যাওয়ার্ড ২০১৭ ও ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৬ সহ অনেক পুরষ্কার পেয়েছে।

ঢাকার হৃদয় হাসান নামের এক অনলাইন শিক্ষার্থী ওই প্রতিষ্ঠান থেকে এনিমেশন কোর্স করেছেন। তিনি স্থাপত্যশিল্প নিয়ে কাজ করেন।

তিনি বলেন, “আমাদের প্রফেশনাল কাজে মাঝে মাঝে ভিডিও এনিমেশনের দরকার হয়, আর বাহিরে গিয়ে ট্রেইনিং করা হয়ে উঠে না। তাই, অফিসে বসে রেপটোতে এনিমেশনের কোর্স কমপ্লিট করি।”

রেপটোর পাবলিক রিলেশন ম্যানেজার আহসান মাহমুদ বলেন, “আমাদের যাত্রা শুরুর পর থেকেই আমরা প্রতিনিয়ত সাড়া পাচ্ছি।” 

“যখন আমরা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে শুনি, আমাদের কোর্স করে তারা অনেক কিছু শিখতে পেরেছে ও কোর্সগুলো বাস্তব জীবনে ব্যবহার করছে। এটা আমাদের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।”

রেপটো এডুকেশন সেন্টারের প্রধান ইস্তিয়াক সিয়াম হ্যালোকে বলেন, “আমাদের দেশের শিক্ষা কারিকুলাম শিশু কিশোরদেরকে গণ্ডির মধ্যে বেঁধে ফেলে। তাদেরকে বর্হিবিশ্ব বা অন্যান্য স্কিল কিংবা নলেজ আছে সেই সম্পর্কে জানতে দেওয় হয় না।”  

“শিশু কিশোররা ঘরে বসে রেপটোর বিভিন্ন টপিকে কোর্স ও সার্টফিকেট অর্জন করতে পারবে। ফলে, শিক্ষার্থীরা তাদের এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাকটিভিজ ডেভেলপ করতে পারবে। এটা তাদের ক্যারিয়ার বা হাইয়ার এডুকেশনে ভূমিকা পালন করবে।”

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত