খবরাখবর

পম্পা সরকার (১৭), নেত্রকোণা

Published: 2018-01-14 18:06:05.0 BdST Updated: 2018-01-14 18:15:03.0 BdST

নেত্রকোণায় কুয়াশা ও শীতের তীব্রতায় ঠাণ্ডা বেড়ে গেছে কয়েক গুণ। সাথে যোগ হয়েছে হিমেল বাতাস। খেটে খাওয়া মানুষ শীতবস্ত্রের অভাবে ঘুমাতে পারছেন না।

সম্প্রতি জেলার পাহাড়ি অঞ্চল, দুর্গাপুর ও কলমাকান্দা উপজেলা এবং হাওর অঞ্চলের মোহনগঞ্জ, মদন ও খালিয়াজুরিতে ঠাণ্ডার প্রকোপে মানুষ কাহিল হয়ে পড়েছেন।

খলিযাজুরি উপজেলার নগর গ্রামের দিনমজুর সালেহ আহমেদ বলেন, ‘আমরা গরিব মানুষ। এবারের শীতে ঠাণ্ডায় ঘুমাতে পারছি না।’

তিনি তার মতো গরিব মানুষদের জন্য গরম কাপড় দাবি করছেন।   

মদন উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের নূরুল হক রুনো জানান, ঘন কুয়াশা আর হিমশীতল বাতাস দুপুর গড়িয়ে গেলেও কমছে না। রোদ উঠছে না। খেটে খাওয়া মানুষ কাজে যেতে না পেরে বিপাকে পড়েছেন। অনেকেই এক সাথে জড়ো হয়ে আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করছেন।   

ট্রাকচালক অব্দুল করিম বলেন, ‘হেড লাইট জ্বালিয়ে গাড়ি চালাতে হচ্ছে। কুয়াশায় রাস্তা দেখা না যাওয়ায় দুর্ঘটনাও ঘটছে। এক ঘণ্টার রাস্তা যেতে লাগছে তিন থেকে চার ঘণ্টা।’  

জেলা প্রশাসক ড. মুশফিকুর রহমান জানান, জেলার উপজেলাগুলিতে গরিব মানুষদের মাঝে প্রশাসনের তরফ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। তার জানা তথ্যমতে বেসরকারিভাবেও এ বিতরণ চলছে বলন তিনি।

 

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত