খবরাখবর

শেখ নাসির উদ্দিন (১৪), টাঙ্গাইল

Published: 2017-05-11 15:48:26.0 BdST Updated: 2017-05-16 17:52:54.0 BdST

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের জামুর্কী ইউনিয়নের পূর্ব গোড়ানে গ্রামবাসীর উদ্যোগে চার কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে।

বর্ষা মৌসুমে এই রাস্তার জন্য ভোগান্তি পোহাতে হয় বলে জানায় এলাকাবাসী। তখন এ পথে চলাচলের বাহন হয়ে যা  নৌকা। নিজেদের দুর্ভোগ কমাতে ঘরে ঘরে গিয়ে চাঁদা তুলে রাস্তা মেরামতের কাজ চলছে।

এ গ্রামের বেশির ভাগ লোক কৃষি কাজ করে। স্থানীয় মজিবর বলেন, “আমার বয়স ৮৫ বছর। এ পর্যন্ত এই রাস্তার কোন কাজ হতে দেখি নাই।”

কাজী মজনু বলে আরেক জন বলেন, “বৃষ্টির সময় না হয় বাদ দিলাম, শুকনা মৌসুমেও বাজার থেকে কোন রিকশা আসে না। সারের বস্তা মাথায় করে বাড়ি ফিরতে হয়।”

অষ্টম শ্রেণির ছাত্র সাইম শিকদার বলে, “বৃষ্টি হলে স্কুলে যেতে পারি না। বৃষ্টির সময় তো রাস্তার কারণে স্কুলেই যেতে পারি না।”

দশম শ্রেণি পড়ুয়া মারুফা বলেন, “আমাদের গ্রামে কোনো স্কুল নেই। অন্য গ্রামে যে যাব বৃষ্টি হলে তার উপায় থাকে না।”

রাজু নামের একজন কৃষক বলেন, “আমাগো টাকা দিয়া রাস্তা করতাছি, সরকার অনেক ঘুরাইছে। তাই নিজেরা চাঁদা তুইলা কাম করতাছি।”

কাজ তদারকির দায়িত্বে থাকা ছানোয়ার হোসেন বলেন, “এম পি সাহেব নিজে বলছেন রাস্তা করা হবে। কিন্তু করে নাই। তাই নিজেরাই চেষ্টা করছি।”

জামুর্কী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলী এজাজ খান রুবেল বলেন, “আমি গিয়ে দেখে এসেছি এবং তাদের নগদ ১০ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছি।
“নিজের উদ্যোগে কাজ করছে দেখে আমি তাদের উৎসাহ দিয়েছি।”

মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত শাদমিন হ্যালোকে বলেন, “এটা আসলেই ভালো উদ্যোগ।”

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত