প্রকাশিত হলো কিডজের প্রথম ঈদ সংখ্যা

“খুব ভালো লাগছে। আসলে সন্তানের যে কোনো অর্জনই বাবা-মায়ের কাছে খুব ভালো লাগে।”
প্রকাশিত হলো কিডজের প্রথম ঈদ সংখ্যা

যাত্রা শুরুর পনের বছর পর প্রথম ঈদ সংখ্যা প্রকাশ করল বাংলা ভাষায় শিশু-কিশোরদের জন্য বিশ্বের প্রথম বাংলা সাইট কিডজ ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ঈদ উপলক্ষ্যে প্রকাশিত এই বিশেষ সংখ্যার প্রকাশনা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়।

শিশু-কিশোর ও অভিভাবকদের এই আয়োজনে সঙ্গী হন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা।

এছাড়াও ছিলেন কবি, অনুবাদক ও প্রাবন্ধিক রাজু আলাউদ্দিন, কিডজের নির্বাহী সম্পাদক মাজহার সরকার, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের হেড অব ইংলিশ নিউজ অরুণ দেবনাথ এবং নিউজ এডিটর এন্ড এডিটোরিয়াল পলিসি কো-অর্ডিনেটর মনিরুল ইসলাম।

পুরষ্কার গ্রহণের জন্য মায়ের সাথে আসে দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া সুনেহরী আলম।

সে হ্যালো ডট বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলে, “ভালো লাগছে। প্রথমবার এমন একটি বড় জায়গায় এটেন্ড করেছি। খুব খুশি লাগছে।”

নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মাশরুর রহমান মুহিতের অনুভূতিও একই।

সে হ্যালোকে বলে, “আমি আজ খুবই খুশি। পুরষ্কার পেয়েছি। খুব ভালো লাগছে, আনন্দ লাগছে। অনেক সুন্দর ছবি আঁকছি আমরা। খুবই আনন্দিত।”

সেলিনা আক্তার নামে একজন অভিভাবক বলেন, “খুব ভালো লাগছে। আসলে সন্তানের যে কোনো অর্জনই বাবা-মায়ের কাছে খুব ভালো লাগে। সাথে সাথে ওর ফ্রেন্ডরাও এখানে এসছে। সব মিলিয়ে আসলে খুব ভালো লাগছে।”

পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেহভিশ বিল্লাহ হ্যালোকে বলে, “আমি পুরস্কার পেয়েছি, আমার খুব ভালো লেগেছে। আমি লেখার সঙ্গে ছবিও এঁকেছি।”

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা তার বক্তব্যে শিশুদের পরামর্শ দিয়ে বলেন, “এখানে (ঈদ সংখ্যায়) তোমরা অনেকেই কবিতা লিখেছ। কবিতা যদি লেখো তাহলে দু্ইটা জিনিস অবশ্যই তোমাদের প্রয়োজন হবে। একটা কিছু কথা বলতে হবে। অবশ্যই তুমি যখন কবিতা লিখবে তখন কথা আসবে। কিন্তু কথাগুলোকে যদি তুমি ছন্দে লেখো তো ছন্দের নিয়ম আছে সেই নিয়মটা তোমাকে পালন করতে হবে।”

তিনি আরও বলেন, “আমি দেখেছি ছন্দের নিয়ম না জানলেও তোমরা যারা লিখেছ তাদের অধিকাংশের ছন্দ কিন্তু ঠিক আছে। ঠিক আছে, কারণ, ছন্দ দুইভাবে আসে। একটা কানের পথে আসে, আরেকটা হলো ব্যাকরণের পথ দিয়ে আসে। আগে কিন্তু কান। কানটা যদি ঠিক ঠিক থাকে তাহলে তোমরা কবিতা লিখতে পারবা।”

কিডজের নির্বাহী সম্পাদক মাজহার সরকার বলেন, “আমরা চাই পরবর্তী প্রজন্ম নিয়ে কাজ করতে যারা এক সময় বড় হবে। আমরা চাই তাদেরকে মূল ধারায় নিয়ে আসতে তারা যেন বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যম এবং সাহিত্যে বড় অবদান রাখতে পারে। সে জায়গা থেকেই অনলাইন ভার্সনের পাশাপাশি আমরা প্রিন্ট ভার্সন প্রকাশ করেছি। আমরা নিয়মিতই করতে চাই।”

ঈদ সংখ্যার প্রকাশনা অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের হেড অব টেকনোলজি জয়িতা তাসনিয়া ইসলাম।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.

সর্বাধিক পঠিত

No stories found.
bdnews24-web.quintype.io