বিলীন হলে প্রিয় উঠান, দুঃখ রাখে কই?

'হারিয়ে যায় নিজের ঘরবাড়ি, উঠোনের গাছপালা কিংবা শখের পোষা প্রাণী।'
বিলীন হলে প্রিয় উঠান, দুঃখ রাখে কই?

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবে শিশু নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শিশুর পরিবার যেমন আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ে তেমনই শিশু মানসিক ভাবেও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব যত বাড়ছে, ততই বাড়ছে আমাদের শঙ্কা।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সৃষ্ট প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন বন্যা, খরা ও ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব শিশুদের মনে ভয় তৈরি করতে পারে। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগে অনেক সময় শিশুরা তাদের স্বজনদের হারিয়ে ফেলে। হারিয়ে যায় নিজের ঘরবাড়ি, উঠোনের গাছপালা কিংবা শখের পোষা প্রাণী।

যে কারণে শিশুরা এক ধরনের মানসিক আঘাতের ভেতর দিয়ে যেতে পারে। এতে শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয় বলে আমার মনে হয়।

অনেক সময় পরিবারের বাবা মা বা অন্য সদস্যরা শিশুদের এই মানসিক সমস্যার বিষয়টিকে বুঝতে পারেন না। যার ফলে শিশুরা সঠিক চিকিৎসা ও কাউন্সিলিং সেবা থেকেও বঞ্চিত হয়। ফলে আজীবন এই আঘাত বয়ে বেড়াতে হয়।

ইউনিসেফ বলেছে বর্তমানে এক বিলিয়ন শিশু জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এই শিশুদেরও জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবের ফলে মানসিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

আমি মনে করি, এই বিষয়ে এখনই সঠিক পদক্ষেপ নেওয়ার সময়। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে শিশু মনে দেখা দেওয়া জটিলতার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে হবে।

প্রতিবেদকের বয়স: ১৬। জেলা: সিলেট।

এ সম্পর্কিত খবর

No stories found.

সর্বাধিক পঠিত

No stories found.
bdnews24
bangla.bdnews24.com