মা কথাটি ছোট্ট অতি | hello.bdnews24.com
আমার কথা

ফারজানা মীম (১৫), ঢাকা

Published: 2022-05-08 15:44:25.0 BdST Updated: 2022-05-08 15:44:25.0 BdST

পৃথিবীতে সবচেয়ে দামি জিনিস মনে হয় মা। মনে হয় না সত্যি সত্যি সবচেয়ে দামি জিনিস মা।

কারণ সব কিছু হারিয়ে গেলে পাওয়া যায় কিন্তু মা হারিয়ে গেলে পাওয়া যায় না। আমার আম্মু আমার সব থেকে প্রিয় মানুষ।

আম্মু আমার সব থেকে ভালো বন্ধু। আম্মুর কাছে আমি সব কিছু শেয়ার করতে পারি। আমার ভালো লাগা খারাপ লাগা সব কিছুই আম্মু জানেন ও খেয়াল রাখেন।

শুধু আমি নই আমার দুই বোনেরও আম্মু অনেক যত্ন করেন।  মা সন্তানকে আদর করে বড় করে তোলে এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু আমার আম্মু মনে হয় আমাদের একটু বেশিই স্নেহ ও যত্ন করেন। কিন্তু এমন নয় যে আমরা অন্যায় করলে শাসন করেন না।

আমার আম্মু যেমন আমাকে ভালোবাসেন, তেমনি শাসনও করেন। আমি যখন রাত জেগে পড়াশোনা করি তখন আম্মু আমার পাশে বসে থাকে যতক্ষণ না পযর্ন্ত আমি বিছানায় ঘুমাতে যাই। স্কুলে যাওয়ার সময় থেকে শুরু করে টিফিন বানিয়ে দেওয়া পর্যন্ত সব কিছুই আমার আম্মু করেন। আমার আম্মু এক হাতে আমাদের তিন বোনকে সামলান। তিনি কখনো এগুলো করতে বিরক্ত হন না। মাঝে মধ্যে আমি আমার আম্মুকে দেখে অবাক হই। যে আম্মু কীভাবে এত দিক সামলান।

আমি বড় হয়ে চাকরি করে আম্মুকে ভালো রাখতে চাই। তার দেখাশোনা করতে চাই। এখন আমাদের যেভাবে আদর যত্ন করে বড় করে তুলছে আমি তার বৃদ্ধ বয়সে ঠিক সেই ভাবে দেখাশোনা করতে চাই। এছাড়া সাপ্তাহিক ছুটির দিনে আমি আমার আম্মুকে তার কাজে সাহায্য করি। এতে আম্মু অনেক খুশি হন যখন আমি কোনো ভালো ফলাফল করি কিংবা কোনো পুরস্কার জিতে আসি তখন সব চেয়ে বেশি আম্মু খুশি হন। আম্মু আমাকে সব ভালো কাজে সাহস দেন।

আমি বড় হয়ে পাইলট হতে চাই। আম্মু কখনো আমাকে আমার ইচ্ছায় বাধা দেননি বরং সব সময় আমাকে সাহস দিয়েছে এবং বলেছে যে চেষ্টা করলে আমি নিশ্চয়ই পারব। আমাদের সমাজে এখনো অনেক মানুষ মনে করেন মেয়েরা বিমান চালাবে এ বিষয়টা মেনে নিতে পারে না। কিন্তু আমার আব্বু-আম্মু দুই জনেই আমাকে সব সময় সাহস দেন এবং কখনোই আমার ইচ্ছায় বাধা দেন না। আম্মুকে আমি খুব ভালোবাসি

প্রতি বছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্ব মা দিবস পালিত হয়। এটি পালনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো মায়ের প্রতি সম্মান ও ভালোবাসা প্রদর্শন।

রাজধানীর অনেক বৃদ্ধাশ্রমে গেলে দেখা যাবে অনেক অবহেলিত মায়েরা যেখানে আছেন। তাদের সন্তানরা হয়তো উচ্চপদস্ত কর্মকর্তা। কিন্তু তারা তাদের মাকে দেখেন না। আমার প্রশ্ন হচ্ছে এখানে তারা কেন এ রকম করে? তারা হয়ত উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে ভালো কর্মকর্তা হতে পেরেছে কিন্তু প্রকৃত শিক্ষা তারা গ্রহণ করতে পারেনি। যারা মাকে ভালোবাসে না, মাকে শ্রদ্ধা করে না, তারা মানুষ নয়।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত