ঈদের শুভেচ্ছা তাদের, যারা আমায় দিয়েছেন টিকার সুরক্ষা | hello.bdnews24.com
আমার কথা

তাসনুভা মেহজাবীন (১৪), খুলনা

Published: 2022-05-03 12:24:46.0 BdST Updated: 2022-05-03 12:24:46.0 BdST

প্রতিনিধিত্বশীল ছবি
ইনজেকশনের সুইয়ের প্রতি ছোট থেকেই একটা ভয় আছে, সম্ভবত আমার একার নয় অনেকেরই।

তৃতীয় কিংবা চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ার সময় যখন শুনেছিলাম স্কুল থেকে রুবেলার টিকা দেয়া হবে, ভয়ে তো সেদিন স্কুলেই যেতে ইচ্ছা করছিল না।

ছোটবেলা মানে একদম ছোট যখন কিছু মনে নেই তখনকার টিকাগুলোর কথা। সেগুলো বাদ দিলে বড় হওয়ার পর প্রথম টিকা ওইটাই ছিল। ওইদিন আমার মতো সবারই ভয় হচ্ছিল। কিন্তু আমার ভয় যেন অতিরিক্তই ছিল।

সেদিন আমার ভয় ভাঙানোর জন্য বিশেষভাবে ধন্যবাদ তাকে যিনি আমাকে টিকা দিয়েছিলেন। তার নামটা ঠিক আমার জানা নেই তাই নাম ছাড়াই ধন্যবাদ দিতে চাই মানুষটাকে যিনি আমাকে টিকার সুরক্ষায় সাহায্য করেছিলেন। আজকে ভালোবাসার এই খোলা চিঠিটা তাকে উদ্দেশ্য করেই।

সেদিন টিকা দেওয়ার সময় স্কুলের হলরুমে নিয়ে ম্যামের কোলে বসিয়ে দিয়েছিলেন আমার আম্মু। তারপর কখন যে একজন আমাকে সুই পুশ করে দিলেন আমি তো টেরই পাইনি। অথচ দেয়ার আগে ভয়ে কুপোকাত ছিলাম।

তাই সেই মানুষটার ধন্যবাদ অনেক প্রাপ্য। নিশ্চয়ই তার দক্ষতা এতটাই ছিল যে চামড়া দিয়ে সুই ঢুকে গেল আর আমি টেরই পেলাম না! আর সাথে সাথে আমার মাকেও ধন্যবাদ যিনি আমাকে টিকা কেন দিতে হবে তা বুঝিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন সেখানে এবং কিসমত আরা ম্যাম যিনি কোলে বসিয়ে সাহস দিচ্ছিলেন আমাকে।

সেদিন স্কুলে রুবেলা টিকা নেয়ার পর সেই যে ভয়টা ভেঙেছিল, আর এ ভয় আসেনি। তাই তো এখন আর টিকার ভয়ে পালিয়ে যাই না।

সুস্থ থাকতে প্রয়োজনীয় প্রতিটি টিকা তাই নিতে পেরেছি এবং সুস্থ থাকতে পেরেছি। ভয় ভাঙানোর জন্য আবারও ধন্যবাদ সেদিন সাহস দেয়া সকলকে। ঈদ উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানাতে চাই। জানি না আমার এই চিঠিটা আপনারা পড়বেন কিনা বা পড়লেও আমাকে চিনতে পারবেন কিনা! তবে আমি সবাইকে আমার ভালোবাসায় রাখব আজীবন। আমার জীবনের সুরক্ষা দেওয়ায় আবারও ধন্যবাদ।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত