হাতুড়ে চিকিৎসা আর কতদিন? | hello.bdnews24.com
আমার কথা

মো. আবু সাঈদ (১৬), সাতক্ষীরা

Published: 2021-10-05 17:43:01.0 BdST Updated: 2021-10-05 17:43:01.0 BdST

“একবার দেখে যাও ডাক্তারি কেরামৎ-
কাটা ছেঁড়া ভাঙা চেরা চট্‌পট্‌ মেরামৎ।
কয়েছেন গুরু মোর, ‘শোন শোন বৎস,
কাগজের রোগী কেটে আগে কর মক্‌স।’
উৎসাহে কিনা হয় কিনা হয় চেষ্টায়?
অভ্যাসে চট্‌পট্ হাত পাকে শেষটায়।”

আমার মনে হয় গ্রামের হাতুড়ে চিকিৎসকদের চিকিৎসার চিত্র স্বচক্ষে দেখেই কবি সুকুমার রায় এই কবিতাটি আওড়ে ছিলেন। 

সাধারণত হাতুড়ে চিকিৎসক হচ্ছেন সেই সকল ব্যক্তি যারা মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিলেও এই বিষয়ে তাদের তেমন কোনো প্রশিক্ষণ নেই।

হাতুড়ে চিকিৎসক মূলত রোগ হাতড়ে বেড়ান। তারা দাবি করেন চিকিৎসা সংক্রান্ত ব্যাপারে তাদের জ্ঞান ও দক্ষতা আছে। কিন্তু অধিকাংশ সময়ে তারা রোগ নির্ণয়ে ব্যর্থ হন এবং ভুল চিকিৎসা প্রদান করেন। তারা প্রায় সব ধরনের চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্র দেন, সব রোগের চিকিৎসা করেন।

অনেকেই ছয় মাস বা এক বছরের প্রশিক্ষণ নিয়ে মানুজনকে সেবা দিতে শুরু করেন। নিজের নামের আগে জুড়ে দেন ডা. শব্দটি।

তাদের ভুল চিকিৎসার কারণে অনেক সময় রোগী বড় ধরনের বিপদে পড়ে।  এমনকি মৃত্যু মুখে পতিত হয়। যে সকল গ্রামে কোনো চিকিৎসক নেই সেখানে তারাই চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন।

আজকে সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগরে বেড়ে ওঠা একজন উপকূলীয়  শিক্ষার্থী হিসেবে  আমি দেখেছি ও অনেকটা উপলব্ধি করেছি সুকুমার রায়ের কবিতায় উল্লেখিত চিকিৎসা পদ্ধতি আমাদের এলাকার  চিকিৎসা পদ্ধতি থেকে কোনোক্রমেই  ভিন্ন নয়।

আমার জন্মভূমি প্রতাপনগরসহ উপকূলের  সব এলাকাতেই এই হাতুড়ে চিকিৎসা পদ্ধতি প্রচলিত আছে। এখানে  নেই উন্নত কোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা।  জরুরি ভিত্তিতে চিকিৎসা নিতে হলে যেতে  হবে শহরে। তাই বাধ্য হয়েই অনেকেই হাতুড়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

আমি নিজের চোখে দেখেছি আমাদের গ্রামে এক নারীকে জ্বরের চিকিৎসার জন্য  মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ দিয়েছিলেন এক হাতুড়ে চিকিৎসক। নষ্ট হওয়া ঐ ঔষুধ খেয়ে কিছুদিন পরে ঐ নারী শারীরিকভাবে ভেঙে পড়েন এবং পরে কঠিন এক ব্যধিতে আক্রান্ত হন।

এভাবে আর কতদিন চলবে? উপকূলবাসীর এই দুর্ভোগ কি কোনোদিন শেষ হবে না? এই উপকুলের অনেক শিক্ষার্থীই বড় চিকিৎসক হয়েছেন।  কিন্তু নিজেদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে কেউ গ্রামে ফেরেন না।

তাহলে উপকূলবাসীর এই দুর্ভোগে কারা পাশে দাঁড়াবে? উপকূলে কি কখনোই উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা হবে না?

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত