আমাদের উচিত নিয়মিত বই পড়া | hello.bdnews24.com
আমার কথা

শাফিন আহাম্মেদ (১২), চাঁদপুর

Published: 2021-07-09 00:24:32.0 BdST Updated: 2021-07-09 00:40:57.0 BdST

মানুষ নিজের অভিজ্ঞতাকে লিপিবদ্ধ করে বই রচনা করে থাকে। বইয়ের মাধ্যমে মানুষ যুগ-যুগান্তরের সমস্ত ইতিহাস ভবিষ্যতের জন্য রেখে যেতে পারে।

গ্রন্থগুলো মানুষের জ্ঞান-বিজ্ঞান, শিল্প-সাহিত্য আর ইতিহাসের সাক্ষী। বই অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের মধ্যে সেতু স্থাপন করে। বইয়ের সাহচার্যে মানুষ এগিয়ে যায় নতুনের পথে।

আমার বই পড়তে ভালো লাগে। আমি মনে করি, মানুষের জীবনযাত্রার সঙ্গী হলো বই। বই সব কিছুর ধারক। ছোটবেলা থেকেই বই পড়তে ভালো লাগে। মানুষের হৃদয়ের বিচিত্র অনুভূতি, আবেগ ও ভাবকে উপলব্দি করা যায় বই পড়ার মাধ্যমে। বই পড়ে মনের দিগন্ত হয় উন্মোচিত ও প্রসারিত। সত্য ও সুন্দরের মহিমা ধরে রেখেছে বই। বই মানুষের আনন্দের সঙ্গী। 

বিখ্যাত লেখকদের অনেকেই বেঁচে নেই। কিন্তু বইয়ের মাধ্যমে আজও আছেন মানুষের মাঝে। তারা আছেন আমাদের সাথেই।

নানা ঘাত-প্রতিঘাতে মানুষ কখনো কখনো বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে, ডুবে যায় হতাশায়। বই মানুষকে হতাশায় পথ চলার খোরাক জোগায়। জ্ঞান সাধনা ও শিল্প সাধনা মানুষকে প্রতিদিন নিয়ে যায় উচ্চতর চিন্তার জগতে। 

দার্শনিক বার্ট্রান্ড আর্থার উইলিয়াম রাসেলের একটা উক্তি পড়েছিলাম। তার মতে, সংসারের জ্বালা যন্ত্রণা এড়ানোর উপায় মনের ভেতরে আপন ভুবন সৃষ্টি করা। তাই আমাদের উচিৎ বই পড়া। 

বইয়ের মাধ্যমে মানুষের বিবেচনাবোধ তৈরি হয়। তাই আমাদের নিয়মিত বইয়ের সংস্পর্শে থাকা উচিত।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত