আমার কথা

যারিন সুবাহ (১২), ঢাকা

Published: 2020-05-20 21:22:44.0 BdST Updated: 2020-05-20 21:22:44.0 BdST

করোনাভাইরাসের কারণে দুই মাস ধরে বাড়িতে আছি আমরা। দেশের পরিস্থিতি অনুযায়ী ঘরে থাকাই নিরাপদ।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ঘরে আছি আমরা। ফলে এক ধরনের একঘেয়েমি লাগছে। সব সময় বাড়িতে শুনতে হচ্ছে 'পড়তে বস'। 

কিন্তু সারাক্ষণ কি পড়ালেখা করা যায়? তাই ভেবেছি এই সময়ে ঘরে থাকা গল্পের বইগুলো পড়ে ফেলব। কথায় আছে, 'যতই পড়িবে, ততই শিখিবে।' বাসায় থাকা বইগুলো শেষ হলে ইন্টারনেট থেকে ডাইনলোড করে নেব ভেবেছি। 

যারা আঁকাঅাঁকি করতে ভালোবাসে তারা আরো অনুশীলনের মাধ্যমে নিজেকে ঝালিয়ে নিতে পারে। রঙ তুলি মন ভালো করে দেয়। 

আমার নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে হচ্ছে। আটকে পড়েছি, কিন্তু আমার কাছে ইন্টারনেট আছে। প্রতিদিনই নতুন কিছু জানতে পারছি, শিখতে পারছি।

এছাড়া মা বাবার বিভিন্ন কাজে সাহায্য করছি আমি। নিজের কাজ নিজে করার পাশাপাশি তাদের সাহায্য করলে তারা খুশিও হন, আমারো ভালো লাগে। 

মার সঙ্গে রান্নাঘরে টুকটাক কাজ করতে রান্না শিখে ফেলব ভাবছি। বাঁচতে হলে খেতে হবেই তাই সবারই রান্না শেখা প্রয়োজন। তাহলে যে কোনো পরিস্থিতিতে আমরা নিজের খাবার নিজে রান্না করতে পারব। নিজের খাবার নিজে তৈরি করতে পারা একটা যোগ্যতা। ছেলেমেয়ে দুজনেরই এটা শেখা উচিত।

আমরা চাইলে বাড়ির সদস্যদের সঙ্গে সুন্দর সময় কাটাতে পারি। যাদের বাড়িতে ভাই বোন আছে আমরা তাদের সাথে খেলাধুলা করতে পারি, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলতে পারি, তাদের লেখাপড়ায় সাহায্য করতে পারি। এতে আমাদের সম্পর্কে মিষ্টতা বাড়বে। 

আমরা সবাই বাড়িতেই আছি, থাকব। সুস্থ থাকব। নিজেকে সময় দিচ্ছি, কে জানে এমন অখণ্ড অবসর তো আর আসবে না হয়ত।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত