আমার কথা

শাহিন আলম (১৭), সাতক্ষীরা

Published: 2019-12-01 17:00:01.0 BdST Updated: 2019-12-01 17:00:01.0 BdST

শহরে বই মেলা চলছে, থাকবে আর মাত্র দুই দিন। অনেক দিনের ইচ্ছে স্যারের সাথে মেলায় যাবো। পূরণ হয়ে গেল আশাটা।

স্যার প্রচণ্ড বই পাগল মানুষ। একবার তো বই কিনতে কিনতে ঢাকা থেকে ফেরার টাকাই ছিল না। মেলায় গিয়ে স্টল পরিদর্শনের সাথে সাথে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও উপভোগ করলাম। স্যার ঝটপট কয়েকটি বই কিনলেন, তার মধ্যে একটি বই 'খবরের আগে খবরের পরে।'

বই পাগল পলান সরকার, নওগাঁয় হাজার হাজার তাল গাছ লাগানো গহর আলী, ঘোড়া চালানো দুরন্ত মেয়েটিসহ নানান প্রতিভাবানদের প্রকাশ্যে আনার পেছনের মানুষ আবুল কালাম মোহাম্মদ আজাদের লেখা। বইটি দেখেই স্যারকে বলে বসলাম, স্যার বইটি নেন, কাল পড়ে দিয়ে দেব।

ফেরার সময় স্যার বললেন তিনি আমার বাসার দিকেই যাবেন। আমি দোকানে বসে অপেক্ষা করতে থাকি। মনের মধ্যে এক ধরনের উদ্দীপনা কাজ করছে কখন বই পড়ব। ভাবলাম স্যার আসতে আসতে একটি গল্প পড়ে শেষ করে ফেলব।

দোকানের সামনে নিভুনিভু আলোতে কয়েক মুহূর্তে একটি গল্প পড়ে শেষ করে ফেললাম। মনের মধ্যে আন্দোলিত হওয়া শুরু করলো, কিন্তু মশার অত্যাচারে থাকা দায় হয়ে যাচ্ছিল। এরপর দোকানের বারান্দায় পা ঝুলিয়ে বসে, হুডি মাথায় দিয়ে মাথা নিচু করে বইয়ের মধ্যে ডুবে যাই। কিছুক্ষণ পর খেয়াল করলাম অনেক মানুষ গোল হয়ে আমাকে দেখছে! আমি থ খেয়ে গেলাম!

এত মানুষ আমাকে দেখছে কেন? একজন বলল, "তুমি যেভাবে বই পড়ছিলে, মনে হচ্ছে বিদ্যার সাগর।" তাদের কথায় আমার নেশা কাটছিল না, তাই পকেট থেকে মোবাইলটি বের করে বইয়ের কয়েকটি ছবি তুলে সেখান থেকে পড়া শুরু করলাম। দেখলাম পরিবেশ ঠাণ্ডা হয়েছে, কেউ আর ফ্যাল ফ্যাল দৃষ্টিতে হা করে তাকিয়ে নেই। মনে মনে বললাম, হায়রে প্রযুক্তি তুমি বড়ই মহান। স্যার আসতে আসতে পাঁচটি গল্প পড়ে শেষ করে ফেললাম। আর বাসায় গিয়ে শেষ করলাম পুরোটা।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত