আমার কথা

রাফসান নিঝুম (১৭), ঢাকা

Published: 2019-10-09 17:59:44.0 BdST Updated: 2019-10-09 17:59:44.0 BdST

রাস্তাঘাটে চলাফেরা করার সময় কত মানুষের সাথে আমাদের দেখা হয়। পরিচিত-অপরিচিত, চেনা-অজানা হরেক রকম মানুষ।

প্রয়োজনে কথা হয় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে। এদের মধ্যে আছেন রিকশাচালক, বাদাম বিক্রেতা, পানি বিক্রেতা বা হোটেলের কর্মচারী।

এই চলার পথে বা, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে তাদেরকে আমরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ‘তুই’ বলে সম্মোধন করি! এই একটা মানুষ, যে কি না আমাকে বা আমাদেরকে সাহায্য করছে তাকে আমরা অসম্মান করছি। ধনী-গরীব ভেদাভেদ করে ফেলি ভাষা ও ব্যবহারের মাধ্যমে।

উদাহরণই দেখা যাক না কেন, যখন আমি বা আমরা কোনো রিকশাচালককে ডাকি, তখন আমরা তাকে সম্বোধন করি, ‘এই যাবি’ বা ‘এই যাবা’ বলে। হতে পারে সে বাবার বয়সী, তবুও।

আবার, হোটেলের কর্মচারীদের আমি, আমরা বলে থাকি ‘টেবিল টা পরিষ্কার কর’ বা ‘তাড়াতাড়ি খাবারটা দে!’ এখানেও আমরা তাদেরকে নিচু ছোট মনে করে, অসম্মান করে সম্বোধন করি!

গরীব এই সকল খেটে খাওয়া মানুষের কি এতটুকু অধিকার নেই যে তারা আমার বা আপনার কাছ থেকে একটু ভালো ব্যবহার, একটু সম্মান বা শ্রদ্ধা পাবে?

আবার, কোনো একজন সম্মানীয় ব্যক্তি বা অচেনা ব্যক্তিকেও আমি বা আমরা "আপনি বা তুমি" করে বলছি। তবে, কেন এই বিভেদ? একজন রিকশাচালক বা হোটেলে কাজ করা লোকটা কি সম্মানের যোগ্য না? নাকি আমাদের দাম্ভিকতায় আমরা তাদেরকে মানুষ বলেই মানতে চাই না?

এই সামান্য "আপনি" করে সম্মোধন করলে হয়তো সেই লোকটা খুশি হবেন। হয়তো মনে একটা আনন্দ অনুভব করবেন।

কাউকে সম্মান দিলে বা ভালো ব্যবহার করলে আমাদের মান-সম্মান কমে যায় না। বরং বৃদ্ধি পায়।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত