আমার কথা

নুসরাত আক্তার (১৭), বান্দরবান

Published: 2018-08-08 14:38:28.0 BdST Updated: 2018-08-09 11:47:59.0 BdST

জীবনে প্রায় সবারই কোনো না কোনো লক্ষ্য থাকে। তেমনি আমারও ইচ্ছে ছিল শিল্পী হওয়া। চিত্রশিল্পী। কিন্তু আমার ইচ্ছে পূরণ হবে না!

আমার এখনও মনে আছে যখন আমি চতুর্থ শ্রেণিতে পড়তাম তখন পড়াশুনাতে ভালোই ছিলাম। তখনও আমাদের চারু ও কারুকলা পরীক্ষা হতো। চতুর্থ শ্রেণির অর্ধবার্ষিক পরীক্ষায় আমার পাশে একটা বড় আপু বসেছিলেন। ওনার আঁকা ছবি দেখে চারুকলার প্রতি আগ্রহ জন্মে। ভাবতাম, কীভাবে এতো সুন্দর ছবি আঁকা যায়?

আমি যখন ষষ্ঠ শ্রেণিতে উঠি তখন দেখলাম আমাদের সিলেবাসে চারু ও কারুকলা বই আছে। আমি অনেক খুশি হয়েছিলাম। বাসায় এসে বইটা দেখলাম উল্টেপাল্টে। খুব ভালো লাগছিল। নতুন নতুন দৃশ্য। প্রথম কয়েকদিন চারুকলার ক্লাস হয়নি। আমার মন খুব খারাপ। শেষে পাঁচ ছ’দিন পর চারুকলার শিক্ষক ডিম্পল চৌধুরী ছবি আঁকা শেখাতে শুরু করলেন।

একদিন হঠাৎ এসে আমাদের টং ঘর এঁকে দেখাতে বললেন। আমি মনের মত করে আঁকলাম কিন্তু আমার পাশের মেয়েটি বলল, সুন্দর হয়নি। তাও আঁকলাম। ম্যাম কে দেখালাম। আমাকে উনি ১০-এ সাত নম্বর দিয়েছিলেন আর যে বলেছিল আমারটা ভালো হয়নি, সে পেয়েছে পাঁচ। আমি বললাম, দেখেছ কারটা সুন্দর হয়ছে? আস্তে আস্তে অংকনের প্রতি আরও ভালোবাসা বাড়তে লাগল।

এক সময় অংকনে ৮০ ভাগ নম্বর পেতে লাগলাম। একটু সময় পেলেই আমি পেন্সিল, খাতা, রাবার ও রং নিয়ে বসে যেতাম আর মনের মতো করে আঁকবার চেষ্টা করতাম।

যখন নবম শ্রেণিতে উঠি আমার আঁকা শেখা বন্ধ হয়ে গেলো। কারণ বিষয়টি অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত। তবু ছোটরা আঁকতে না পারলে শিখিয়ে দিতাম।।

একাদশ শ্রেণিতে যখন উঠি তখন সব বন্ধুরা আলাদা আলাদা কলেজে চলে যায়। নতুন নতুন বন্ধু হলো আর আবার শুরু হলো আঁকা। বন্ধুরাও আঁকতে ভালোবাসে। আঁখি, রিফাত, নিশাত আরও অনেক জন। আঁখি ভালো আবৃত্তিও করতে পারে।

জাতীয় সব দিবসে বান্দরবানে আবৃত্তি, রচনা, বক্তৃতা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা হয়। ২১ ফেব্রুয়ারিতে আমি আঁকায় টিকলাম না কিন্তু আবৃত্তিতে প্রথম হয়ে গেলাম।

নববর্ষ  উপলক্ষে নানা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় তখন আমি, সুরভী আর আমাদের আরেক বান্ধবী যাই। এবার চিত্রাংকনে ও দ্বিতীয় আর আমি তৃতীয় হলাম। তবু আমি খুশি। 

ইচ্ছে ছিল ঢাকা আর্ট কলেজে পড়ব। কিন্তু মধ্যবিত্ত পরিবারের সংকটের কারণে পড়া সম্ভব হবে না আমার। আর আমাদের মেয়েদের নির্যাতনের খবরে বাবা খুব উদ্বিগ্ন। তিনে যেতেও দেবেন না। আমার ইচ্ছেটা বান্দরবানেই সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।

অনেকেরই আমার মতো স্বপ্নভঙ্গ হয়। নিজের আর তাদের জন্য দুঃখ প্রকাশ ছাড়া আর কিছু করতে পারব না তবে এ শুভেচ্ছা রাখতে পারব, তারা যেন ভবিষ্যতে ভাল কিছু করতে পারে।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত