বিশ্বজুড়ে

আজমল তানজীম সাকির (১৩), ঢাকা

Published: 2016-08-06 21:44:33.0 BdST Updated: 2016-08-07 17:48:45.0 BdST

পুরো পৃথিবীকে ক্রীড়ার উন্মাদনায় মাতায় অলিম্পিক গেমস। এবারের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের আসর বসছে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে।

বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর সাড়ে ৫টায় অলিম্পিকের ৩১তম আসরের আনুষ্ঠানিক পর্দা উঠেছে। ব্রাজিলের অন্তর্বর্তীকালীন রাষ্ট্রপতি মিশেল তেমার এই উদ্বোধন করেন।

ব্রাজিলের ইতিহাস আর সংস্কৃতি তুলে ধরা হয় অনুষ্ঠানে। পর্তুগিজদের ব্রাজিলে আগমন থেকে শুরু করে ব্রাজিলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য- বাদ পড়েনি কিছু। সাথে ছিল জমকালো আতশবাজির ঝলকানি ও আলোর ছটা।

ঐতিহ্য অনুযায়ী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রত্যেক দেশের ক্রীড়াবিদরা কুচকাওয়াজে অংশ নেন। ক্রীড়াবিদের মধ্যে একজন নিজ দেশের পতাকা ধরেন। আয়োজক দেশের ভাষার অক্ষরক্রম অনুসারে ক্রীড়াবিদরা কুচকাওয়াজ করেন।

এবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মাতিয়েছেন এলজা সোরেস, ম্যাক সোফিয়া, ক্যারল কনকার মতো তারকা সঙ্গীতশিল্পীরা। ব্রাজিলের মডেল জিজেলে বুন্দচেনও পারফর্ম করেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ফার্নান্দো মেয়ারলেস।

উদ্বোধনের আগেই রিও অলিম্পিকের ওয়েবসাইটকে ফার্নান্দো বলেন, “আমি মনে করি এটি চমৎকার একটি বিষয় যে অনুষ্ঠানে আমরা শুধুমাত্র তারকাদেরই রাখব না। জনপ্রিয় সংস্কৃতিও আমরা রাখব।"

এই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছে বিশ্বের ২০৬টি দেশ। এছাড়া দশ সদস্য নিয়ে তৈরি হয়েছে শরণার্থী অলিম্পিক দল। শরণার্থী অ্যাথলেটদের নিয়ে এ দল গঠন করা হয়েছে।
বিবিসি তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, এবারের অলিম্পিকে মোট ১০ হাজার পাঁচশ জন ক্রীড়াবিদ অংশ নেবেন। পাঁচশ ৫৪ জন ক্রীড়াবিদ নিয়ে বৃহত্তম দল যুক্তরাষ্ট্র। এদের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ হলেন নেপালের সাঁতারু গৌরিকা সিং। তার বয়স ১৩ বছর।

দ্য গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ হিসেবে খ্যাত অলিম্পিক গেমসের প্রতিযোগিতার জন্য তৈরি করা হয়েছে পাঁচ হাজারেরও বেশি পদক। এ পদকগুলো স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জের। ২১ অগাস্ট পর্যন্ত এ পদকের জন্য ক্রীড়াবিদদের লড়াই চলবে।

বাংলাদেশ থেকে সাতজন ক্রীড়াবিদ অংশ নিয়েছেন অলিম্পিকে। গলফে সিদ্দিকুর রহমান, শুটিংয়ে আব্দুল্লাহ হেল বাকি, সাঁতারে মাহফিজুর রহমান সাগর ও সোনিয়া আক্তার টুম্পা, আর্চারিতে শ্যামলী রায় ও অ্যাথলেটিকসে মেজবাহ আহমেদ ও শিরিন আক্তার। এই প্রথম বাংলাদেশের কোনো ক্রীড়াবিদ অলিম্পিকে ওয়াইল্ড কার্ড ছাড়াই খেলছেন। আর এ কীর্তি গড়েছেন গলফার সিদ্দিকুর।

টেলিভিশনের পর্দায় অনুষ্ঠানটি পৃথিবীর তিন বিলিয়ন মানুষ এ মহাযজ্ঞের উদ্বোধনী দেখেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

এ মহাযজ্ঞের কারণে কঠোর করা হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও। বিবিসি জানিয়েছে, ৮৫ হাজার নিরাপত্তাকর্মী থাকবেন নিরাপত্তা দিতে।

তবে মশার মাধ্যমে ছড়ানো জিকা ভাইরাস নিয়ে রয়েছে আতঙ্ক। এ ভাইরাসের কারণে অলিম্পিক গেমস দেখতে অন্তঃসত্ত্বাদের ভ্রমণ এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। যদিও জুন ও অগাস্টে এ ভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় অলিম্পিক গেমস বাতিল বা সরিয়ে নেওয়া হয়নি। তারপরেও বেশ ক'জন ক্রীড়াবিদ জিকার আতঙ্কে নাম প্রত্যাহার করেছেন।

অলিম্পিক উপলক্ষে ইতিমধ্যেই দেশ-বিদেশের মানুষ ভিড় জমিয়েছেন ব্রাজিলে। আশা করা হচ্ছে পাঁচ লক্ষেরও বেশি পর্যটক আসবেন সাম্বার দেশ ব্রাজিলে।

ক্রীড়ার মাধ্যমে বিশ্বকে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে বাঁধা অলিম্পিক গেমসের যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৮৬ সালে। প্রথম আসর বসেছিল গ্রিসের এথেন্সে।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত