খবরাখবর

Mohua Mou

Published: 2017-05-26 17:37:58.0 BdST Updated: 2017-05-26 17:37:58.0 BdST

হ্যালোর শিশু সাংবাদিকদের জেলা পর্যায়ের তত্ত্বাবধায়কদের নিয়ে দুই দিন ব্যাপী কর্মশালা শুরু হয়েছে ঢাকায়।

শুক্রবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান কার্যালয়ে ২৪ জেলার তত্ত্বাবধায়কদের নিয়ে এই কর্মশালার উদ্বোধন হয়।

ইউনিসেফ বাংলাদেশের অংশীদারিত্বে শিশু সাংবাদিকতা নিয়ে দুই বছর মেয়াদী এক প্রকল্পের আওতায় এই কর্মশালা হচ্ছে।

কর্মশালায় শিশু সাংবাদিকতা ও হ্যালোর কর্মকৌশল নিয়ে আলোচনা করেন হ্যালোর নির্বাহী সম্পাদক মুজতবা হাকিম প্লেটো।

এছাড়া সংবাদ বিষয়ক নানা পরামর্শ ও অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোচনা করেন বার্তা সম্পাদক মনিরুল ইসলাম ও জ্যেষ্ঠ সহসম্পাদক দেবাশীষ দেব।

এ বিষয়ে মুজতবা হাকিম প্লেটো হ্যালোকে বলেন, “প্রকল্পের আওতায় ২৪ জেলার শিশু সাংবাদিকরা যুক্ত হলেও সারাদেশের শিশুরা এখানে কাজ করতে পারবে।”

বাগেরহাটের শিশু তত্ত্বাবধায়ক অলীপ ঘটক বলেন, “হ্যালো শিশুদের জন্য একটি সৃজনশীল প্ল্যাটফর্ম। আমার জেলার আগ্রহী শিশুদের নিয়ে কাজ করতে চাই।”    

হ্যালোর কার্যক্রম চলছে ভোলা, পটুয়াখালী, কক্সবাজার, বান্দরবান, নোয়াখালী, সিলেট, মৌলভীবাজার, মাগুরা, বাগেরহাট, ঠাকুরগাঁও, ঝালকাঠি, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, সাতক্ষীরা, খুলনা, জামালপুর, শেরপুর, নেত্রকোণা, খাগড়াছড়ি ও রাঙ্গামাটি।

শিশুদের সংগ্রহ করা খবর নিয়ে শিশুদের জন্য বিশেষায়িত ওয়েবসাইট http://hello.bdnews24.com/ এর যাত্রা শুরু হয় ২০১৩ সালের ৩১ মার্চ। হ্যালোর জন্য সংবাদ সংগ্রহ থেকে পরিবেশন পর্যন্ত সব কাজেই যুক্ত রয়েছে শিশু ও কিশোর সাংবাদিকরা।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত
  • আনুমানিক দুইশ বছরের পুরনো আমগাছ

    ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রায় দুই বিঘা জুড়ে আছে একটি আমগাছ। দেখলে মনে হয় বিরাট এক আম বাগান। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, এই মহীরূহের বয়স আনুমানিক দুইশ বছরের কম নয়।

  • ধিক্কার: বঙ্গবন্ধু হত্যার খবরকে অবহেলা করেছিল যারা

    শুধু রাজনীতি নয়, সংবাদপত্রের কাজের সঙ্গেও বঙ্গবন্ধুর সম্পৃক্ততা ছিলো। জীবনের কর্মযজ্ঞে কখনও পত্রিকার মালিক, কখনও সাংবাদিক, কখনও পূর্ব পাকিস্তান প্রতিনিধি, কখনও বা পরিবেশক ছিলেন তিনি। দরকারে হকারিও করেছেন।

  • দৃষ্টিহীনতা দমাতে পারেনি রফিকুলকে

    কুড়িগ্রামের রফিকুল ইসলাম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হয়েও তার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর আবর্জনা রিসাইকেল করে তিনি নিত্য ব্যবহারের জিনিস তৈরি করে বাজারজাত করছেন।