কথায় কথায়

আজমল তানজীম সাকির (১২), ঢাকা

Published: 2016-07-17 20:18:51.0 BdST Updated: 2016-07-17 20:24:18.0 BdST

তানভীর আনজুম তুষার একজন স্বপ্নবাজ কিশোর।  রাজধানী ঢাকার একটি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষে পড়ে ও।

ছোট থেকেই স্বপ্ন পথশিশুদের পাশে দাঁড়ানোর। সচ্ছল পরিবারের  শিশু হিসেবে নিজে যে সুযোগ পেয়েছে তা পৌঁছে দিতে চায় পথশিশুদের কাছে।

নিজের স্বপ্ন নিয়ে হ্যালোর সঙ্গে আড্ডা দেয় ও।

হ্যালোঃ কেমন আছ?

তানভীর আনজুম তুষারঃ ভালো আছি।

হ্যালোঃ পড়াশোনার চাপ কেমন? পড়াশোনা উপভোগ কর?

তানভীর আনজুম তুষারঃ কয়েকমাস পরেই পরীক্ষা। তাই চাপ একটু বেশি। আর উপভোগের প্রশ্ন আসলে বলতে হয় বইয়ের পড়া থেকে বাস্তবতা আর পারিপার্শ্বিক পরিবেশ থেকে শিক্ষা নিতে বেশি পছন্দ করি।

হ্যালোঃ সিলেবাসের বাইরের বই নিশ্চয় পড়া হয়?

তানভীর আনজুম তুষারঃ সিলেবাসের বাইরে বই পড়তে ভালোবাসি। যদিও এখন তেমন পড়া হয় না। তারপরও অবসর পেলে বই পড়ে সময় কাটাই।

হ্যালোঃ শুনলাম পড়ালেখার পাশাপাশি অনেক কিছু কর।

তানভীর আনজুম তুষারঃ পড়ালেখার পাশাপাশি পথশিশু আর থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে কাজ করছি। পথশিশুদের জন্য বিভিন্ন ধরনের ইভেন্ট পরিচালনা করি। খাবার, ইফতার, ঈদে নতুন কাপড় বা শীতে গরম কাপড় দেই।  বিতরণ করে থাকি। পথশিশুদের সমাজের মূল স্রোতে আনতে ওদের জন্য একটা স্কুল চালাই মালিবাগে। থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের নিয়েও কাজ করছি। শিশুদের জন্য বিনামূল্যে রক্তের ব্যবস্থা করেও দিই।

খেলাধুলা কিংবা বন্ধুদের সাথে আমি সময় খুব কম কাটাই। দিনের অবসর সময় পথশিশু কিংবা থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের নিয়ে কাটাই। আর যদি একটু বেশি সময় তাহল ঘুরতে বেরিয়ে পড়ি।

হ্যালোঃ পথশিশুদের নিয়ে কাজ করার ইচ্ছাটা কীভাবে হল?

তানভীর আনজুম তুষারঃ পথশিশুদের নিয়ে কাজ করার ইচ্ছেটা মূলত ছোটবেলা থেকেই ছিল। সেই ছোট্ট বেলা মাত্র ১২ বছর বয়স থেকে বাবা-মা ছেড়ে পড়াশোনার জন্য হোস্টেলে থাকতাম। হোস্টেলের নিচে পথশিশুদের মানবেতর জীবনযাপন দেখে প্রথম ওদের নিয়ে কাজ করার ইচ্ছাটা জাগে। ছোট ছিলাম আর সুযোগের অভাব ছিল বলে তখন করা হয়ে উঠেনি। এখন বড় হচ্ছি, সুযোগ আছে তাই কাজ করছি।

হ্যালোঃ পরিবার ও বন্ধুদের সহযোগিতা কেমন পেয়েছ?

তানভীর আনজুম তুষারঃ পরিবারের সহযোগিতা আর সমর্থন বরাবরই ছিল। তবে বন্ধুদের সহায়তা তেমন পাইনি।

হ্যালোঃ সহায়তার আহ্বান জানাওনি?

তানভীর আনজুম তুষারঃ জানিয়েছি। তবে তেমন সাড়া পাইনি শুরুতে। এখন মোটামুটি তাদের আগ্রহ বাড়ছে আমার কাজের প্রতি। দুই একজন সক্রিয়ভাবে কাজও করছে আমার সাথে।

হ্যালোঃ স্বপ্ন কি? পথশিশুদের জন্য আর কী কী করতে চাও?

তানভীর আনজুম তুষারঃ পথশিশুদেরকে সমাজের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনতে চাই। পথশিশু কিংবা সুবিধাববঞ্চিত শিশুদের জন্য একটা স্থায়ী স্কুল খুলতে চাই। চাই সে স্কুলে শিশুরা সব সুযোগসুবিধা পেয়ে বড় হবে।

হ্যালোঃ হ্যালোকে সময় দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

তানভীর আনজুম তুষারঃ তোমাকেও ধন্যবাদ।

Print Friendly and PDF

সর্বাধিক পঠিত